ভা'রতের পর এবার পা'কিস্তানেও টিকট'ক নিষিদ্ধ..

ভা'রতের পর এবার পা'কিস্তান সরকার তাদের দেশে টিকট'ক নিষিদ্ধ করেছে। ছোট ভিডিও বানানোর অ্যাপটির বি'রুদ্ধে ‘অ'নৈতিক এবং অশ্লীল’ কনটেন্ট প্রচারের অ'ভিযোগ এনেছে দেশটি।

তুমুল জনপ্রিয় অ্যাপটির নামে জুলাই মাসে পা'কিস্তানে ৫০০টি অ'ভিযোগ পড়ে।

পা'কিস্তান টেলিকমিউনিকেশন অথোরিটি (পিটিএ) শুক্রবার বিবৃতিতে বলেছে, ‘টিকট'কে ধারাবাহিকভাবে পোস্ট করা কনটেন্টের বিষয়ে অ'ভিযোগ খতিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।’

নিষিদ্ধ করলেও টিকট'কের জন্য একটা সুযোগ রেখেছে পিটিএ, ‘তারা সন্তোষজনক পদক্ষেপ নিলে আম'রা এই সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করে দেখব।’

এর আগে অক্টোবরের শুরুতে জানা যায়, পা'কিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইম'রান খান টিকট'ক নিষিদ্ধ করতে চান।

দেশটির তথ্যমন্ত্রী শি'বলি ফরাজ ইম'রানকে উদ্ধৃত করে সাংবাদিকদের বলেন, ‘সামাজিক ক্ষতির কথা বিবেচনা করে প্রধানমন্ত্রী এই অ্যাপ নিষিদ্ধের পরিকল্পনা করেছেন।’

বাইটড্যান্সের মালিকানাধীন টিকট'ক পা'কিস্তানে তৃতীয় সর্বাধিক ডাউনলোড হওয়া অ্যাপ। চলতি বছরেই এটি ৪.৬ মিলিয়ন বার ডাউনলোড হয়েছে।

পা'কিস্তানে সম্প্রতি এক টিকট'ক ব্যবহারকারী তরুণী আরেক টিকট'ক ব্যবহারকারী যুবকের কাছে শারীরিক নি'র্যাতনের শিকার হন। টিকট'কের মাধ্যমেই তাদের পরিচয়। ইম'রান খানের নেতৃত্বাধীন সরকার এই ঘটনার সমালোচনা করে টিকট'ককে এক হাত নেয়।

ভা'রতে সম্প্রতি অ্যাপটি নিষিদ্ধ করা হয়। বিজেপি সরকার নিরাপত্তার অজুহাত দিলেও মূল কারণ রাজনৈতিক। যু'ক্তরাষ্ট্র সরকারও একই পথে হাঁটার চেষ্টা করছে।

দেশটির প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রা'ম্পের দাবি, টিকট'ক চীন সরকারকে যু'ক্তরাষ্ট্রের তথ্য সরবরাহ করে। এমন আলোচনার ভেতর টিকট'কের বি'রুদ্ধে নির্বাহী আদেশে জানান, ১৫ সেপ্টেম্বরের মধ্যে বাইটড্যান্সকে তাদের টিকট'ক অ্যাপের ইউএস ভা'র্সন হয় বিক্রি করতে হবে, না হয় ব্যবসা গুটিয়ে ফেলতে হবে। এরপর ১৪ সেপ্টেম্বর ওরাকলের সঙ্গে চুক্তি করে টিকট'কের ইউএস ভা'র্সন। তবে মালিকানা পুরোপুরি বিক্রি করেনি কোম্পানিটি।

Back to top button

You cannot copy content of this page