ঢাকা ০১:৫৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞপ্তি ::
আমাদের নিউজপোর্টালে আপনাকে স্বাগতম... সারাদেশে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে...

হেড ফিরবেন ওপেনার হয়েই, জানিয়েছেন বেইলি

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৯:৪২:১৩ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২২ অক্টোবর ২০২৩ ৯৭ বার পড়া হয়েছে

সর্বশেষ ম্যাচেই রেকর্ড ওপেনিং জুটি গড়েছেন। পাকিস্তানের বিপক্ষে ডেভিড ওয়ার্নার ও মিচেল মার্শ মিলে তুলেছেন ২৫৯ রান, যা বিশ্বকাপে ওপেনিংয়ে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ জুটি। সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছিলেন দুজনই। তবে এরপরও বিশ্বকাপের বাকি অংশে হয়তো তাঁদেরকে আর একসঙ্গে ওপেনিংয়ে দেখা যাবে না।

কারণ, চোট থেকে সেরে উঠে একাদশে ফিরলে ট্রাভিস হেডই ইনিংসের শুরুতে নামবেন। সে ক্ষেত্রে জায়গা ছেড়ে নিচে নেমে যেতে হবে মার্শকে। সরাসরি এটা জানিয়েছেন নির্বাচক কমিটির প্রধান জর্জ বেইলি।
গত মাসে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে চতুর্থ ওয়ানডেতে বাঁ হাতে চোট পান হেড। স্ক্যানে চিড় ধরা পড়ে বাঁহাতি ওপেনারের। তাঁকে দেশে রেখেই বিশ্বকাপ খেলতে ভারতে যায় অস্ট্রেলিয়া। তবে প্রত্যাশার চেয়ে দ্রুত বাঁ হাতের চোট থেকে সেরে উঠে এরই মধ্যে দলের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন তিনি। নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে পরের ম্যাচেই তাঁর ফেরার আশা করছে অস্ট্রেলিয়া।
তিনি যদি বুধবার নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে ফেরেন, তাহলে তিনি কোথায় ব্যাট করবেন? মার্শ ও ওয়ার্নারের রেকর্ডময় এক জুটির পর এই প্রশ্নটা উঠেছিল। বেইলি নিশ্চিত করেন ওপেনিং ব্যাটসম্যান হেড ফিরবেন ওপেনার হয়েই, ‘এটা নিশ্চিত যে (ফেরার পর হেড) টপ অর্ডারেই খেলবে। আমাদের হয়ে সেখানে সে দারুণ খেলেছে এবং সে সেই জায়গাতেই খেলবে। এরপর আমরা দেখব যে কখন (ম্যাচ), কাদের বিপক্ষে খেলা, উইকেট কেমন এবং আমাদের কী কী দরকার।’

আগামী ম্যাচে পাওয়ার প্রত্যাশা থাকলেও তাঁকে নিয়ে তাড়াহুড়া নেই অস্ট্রেলিয়ার। বেইলি বলেছেন, ‘এটি (হাড়ে চিড় ধরা) সাধারণত ছয় থেকে আট সপ্তাহের চোট হতে পারে। চতুর্থ সপ্তাহে স্ক্যানে সবকিছু ভালো আসে, হাড়ের চিড়ও জোড়া লেগে যায়। তো সবকিছু ভালো যাচ্ছে এবং সে এই সপ্তাহে (ব্যাটিং শুরুর পর) ভালো উন্নতি করেছে। তবে তাকে (স্কোয়াডে) রাখা এবং এখন পর্যন্ত বিবেচনায় রাখার মানে এই নয় যে দ্রুত ফিরিয়ে এনে ঝুঁকিতে ফেলে দেওয়া হবে। তাই এটা (হেডের ফেরা) যদি ডাচদের বিপক্ষে ম্যাচে হয়, তাহলে ভালো। যদি আরও একটু পরে হয়, তাহলেও ঠিক আছে।’

২০২২ সালে অস্ট্রেলিয়ার ওয়ানডে দলে ফেরার পর থেকেই দুর্দান্ত ফর্মে হেড। এই সময়ে ১১৯.১৪ স্ট্রাইক রেট আর ৬০.৮৪ গড়ে রান করেছেন হেড। তিনি ফিরলে স্পিন বোলিং অপশনও বাড়বে প্যাট কামিন্সের।

দিল্লিতে আগামী বুধবার নেদারল্যান্ডসের মুখোমুখি হবে তারা। চার ম্যাচে দুই জয় নিয়ে এখন পয়েন্ট টেবিলের চারে অস্ট্রেলিয়া।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

হেড ফিরবেন ওপেনার হয়েই, জানিয়েছেন বেইলি

আপডেট সময় : ০৯:৪২:১৩ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২২ অক্টোবর ২০২৩

সর্বশেষ ম্যাচেই রেকর্ড ওপেনিং জুটি গড়েছেন। পাকিস্তানের বিপক্ষে ডেভিড ওয়ার্নার ও মিচেল মার্শ মিলে তুলেছেন ২৫৯ রান, যা বিশ্বকাপে ওপেনিংয়ে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ জুটি। সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছিলেন দুজনই। তবে এরপরও বিশ্বকাপের বাকি অংশে হয়তো তাঁদেরকে আর একসঙ্গে ওপেনিংয়ে দেখা যাবে না।

কারণ, চোট থেকে সেরে উঠে একাদশে ফিরলে ট্রাভিস হেডই ইনিংসের শুরুতে নামবেন। সে ক্ষেত্রে জায়গা ছেড়ে নিচে নেমে যেতে হবে মার্শকে। সরাসরি এটা জানিয়েছেন নির্বাচক কমিটির প্রধান জর্জ বেইলি।
গত মাসে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে চতুর্থ ওয়ানডেতে বাঁ হাতে চোট পান হেড। স্ক্যানে চিড় ধরা পড়ে বাঁহাতি ওপেনারের। তাঁকে দেশে রেখেই বিশ্বকাপ খেলতে ভারতে যায় অস্ট্রেলিয়া। তবে প্রত্যাশার চেয়ে দ্রুত বাঁ হাতের চোট থেকে সেরে উঠে এরই মধ্যে দলের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন তিনি। নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে পরের ম্যাচেই তাঁর ফেরার আশা করছে অস্ট্রেলিয়া।
তিনি যদি বুধবার নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে ফেরেন, তাহলে তিনি কোথায় ব্যাট করবেন? মার্শ ও ওয়ার্নারের রেকর্ডময় এক জুটির পর এই প্রশ্নটা উঠেছিল। বেইলি নিশ্চিত করেন ওপেনিং ব্যাটসম্যান হেড ফিরবেন ওপেনার হয়েই, ‘এটা নিশ্চিত যে (ফেরার পর হেড) টপ অর্ডারেই খেলবে। আমাদের হয়ে সেখানে সে দারুণ খেলেছে এবং সে সেই জায়গাতেই খেলবে। এরপর আমরা দেখব যে কখন (ম্যাচ), কাদের বিপক্ষে খেলা, উইকেট কেমন এবং আমাদের কী কী দরকার।’

আগামী ম্যাচে পাওয়ার প্রত্যাশা থাকলেও তাঁকে নিয়ে তাড়াহুড়া নেই অস্ট্রেলিয়ার। বেইলি বলেছেন, ‘এটি (হাড়ে চিড় ধরা) সাধারণত ছয় থেকে আট সপ্তাহের চোট হতে পারে। চতুর্থ সপ্তাহে স্ক্যানে সবকিছু ভালো আসে, হাড়ের চিড়ও জোড়া লেগে যায়। তো সবকিছু ভালো যাচ্ছে এবং সে এই সপ্তাহে (ব্যাটিং শুরুর পর) ভালো উন্নতি করেছে। তবে তাকে (স্কোয়াডে) রাখা এবং এখন পর্যন্ত বিবেচনায় রাখার মানে এই নয় যে দ্রুত ফিরিয়ে এনে ঝুঁকিতে ফেলে দেওয়া হবে। তাই এটা (হেডের ফেরা) যদি ডাচদের বিপক্ষে ম্যাচে হয়, তাহলে ভালো। যদি আরও একটু পরে হয়, তাহলেও ঠিক আছে।’

২০২২ সালে অস্ট্রেলিয়ার ওয়ানডে দলে ফেরার পর থেকেই দুর্দান্ত ফর্মে হেড। এই সময়ে ১১৯.১৪ স্ট্রাইক রেট আর ৬০.৮৪ গড়ে রান করেছেন হেড। তিনি ফিরলে স্পিন বোলিং অপশনও বাড়বে প্যাট কামিন্সের।

দিল্লিতে আগামী বুধবার নেদারল্যান্ডসের মুখোমুখি হবে তারা। চার ম্যাচে দুই জয় নিয়ে এখন পয়েন্ট টেবিলের চারে অস্ট্রেলিয়া।