ঢাকা ০৭:২১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞপ্তি ::
আমাদের নিউজপোর্টালে আপনাকে স্বাগতম... সারাদেশে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে...

সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য প্রয়াসের ঘাটতি থাকবে না: সিইসি

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৩:৩৫:১০ অপরাহ্ন, শনিবার, ৭ অক্টোবর ২০২৩ ৪১ বার পড়া হয়েছে

প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল বলেছেন, নির্বাচন যাতে অবাধ, নিরপেক্ষ, শান্তিপূর্ণ, অংশগ্রহণমূলক ও উৎসবমুখর হয়, সে জন্য নির্বাচন কমিশনের প্রয়াসের কোনো ঘাটতি থাকবে না।

আজ শনিবার সকালে আগারগাঁওয়ের নির্বাচন ভবনে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) মাঠপর্যায়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠকে সূচনা বক্তব্যে সিইসি এসব কথা বলেন।
বৈঠকে সিইসি বলেন, ‘আমাদের সরকারের সহায়তার ওপর নির্ভর করতে হবে। সরকারের জনপ্রশাসন, পুলিশ, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী, তাদের সঙ্গে সমন্বয় করে কীভাবে সুদৃঢ় ও সহজ হবে, তা বের করে নির্বাচনের যে উদ্দেশ্য, অর্থাৎ অবাধে ভোটাধিকার প্রয়োগ করে নির্বাচনের ফলাফল উঠে আসবে, আমরা সেই বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা করব।’

সভা শেষে এক ব্রিফিংয়ে ইসির অতিরিক্ত সচিব অশোক কুমার দেবনাথ বলেন, ৬৪ জেলা ও ১০টি আঞ্চলিক নির্বাচন কার্যালয়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে মতবিনিময় হয়েছে। তিনি আরও বলেন, এটা মূলত প্রাথমিক সভা। কিছু জানতে চাওয়া হয়েছে, কিছু নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। মূলত, ভোটার তালিকা, ভোটকেন্দ্রের প্রস্তুতি নিয়ে জানতে চাওয়া হয়েছে। তাঁদের সুনির্দিষ্ট সমস্যা আছে কি না, একেক অঞ্চলে একেক সমস্যা থাকতে পারে। সেটা জানতে চাওয়া হয়েছে।

অশোক কুমার দেবনাথ বলেন, বৈঠকে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সহযোগিতার কথা বলা হয়েছে। জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার—সবার সহযোগিতা নিয়ে তাঁদের কাজ করতে হবে।
কোনো রাজনৈতিক সমস্যার কথা তাঁরা বলেননি। সামনে ডিসি–এসপিদের প্রশিক্ষণের সময় প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেওয়া হবে, এটা প্রশাসনিক বিষয়।

এক প্রশ্নের জবাবে অতিরিক্ত সচিব বলেন, মাঠ কর্মকর্তারা কোনো ঘাটতির কথা উল্লেখ করেননি। নির্বাচনী আচরণবিধি যাতে সবাই মেনে চলে, এ জন্য তাঁরা সবার সহযোগিতা কামনা করেছেন। এ বিষয়েই বেশি জোর দেওয়া হয়েছে। অবস্থা বুঝে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

ডিবির হারুন বলেন, রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে কিশোর গ্যাং সদস্যদের সঙ্গে জড়িত ৩৩ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছৈ। তাদের গ্রেফতার করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের ওয়ারী ও গুলশান বিভাগ। গ্রেফতারদের মধ্যে বেশিরভাগ কিশোর গ্যাং সদস্যের বিরুদ্ধে থানায় মামলা রয়েছে। তিনি জানান, গ্রেফতাররা বাড্ডা, ভাটারা, তুরাগ, তিনশ ফিট ও যাত্রাবাড়ীসহ রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় টার্গেট করা ব্যক্তিদের ইভটিজিং বা কোনো সময় ধাক্কা দেওয়ার ছলে উত্ত্যক্ত করত। এরপর তারা ঘেরাও করে ভুক্তভোগীদের কাছ থেকে মোবাইলফোন এবং নারীদের কাছ থেকে সোনার অলঙ্কার ছিনিয়ে নিত। এ ছাড়া তারা ছিনতাই, চাঁদাবাজি ও চুরির সঙ্গে জড়িত। এসব গ্যাং সদস্য মাদক কারবারের সঙ্গেও জড়িত। ডিবি হারুন জানান, গ্রেফতার কিশোর গ্যাং সদস্যদের জিজ্ঞাসাবাদে কিছু কথিত বড় ভাইয়ের নাম পাওয়া গেছে। বড় ভাইদেরও গ্রেফতার করা হবে। কিশোর গ্যাং সদস্যদের বিরুদ্ধে ডিবির প্রতিটি টিম কাজ করছে।

সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য প্রয়াসের ঘাটতি থাকবে না: সিইসি

আপডেট সময় : ০৩:৩৫:১০ অপরাহ্ন, শনিবার, ৭ অক্টোবর ২০২৩

প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল বলেছেন, নির্বাচন যাতে অবাধ, নিরপেক্ষ, শান্তিপূর্ণ, অংশগ্রহণমূলক ও উৎসবমুখর হয়, সে জন্য নির্বাচন কমিশনের প্রয়াসের কোনো ঘাটতি থাকবে না।

আজ শনিবার সকালে আগারগাঁওয়ের নির্বাচন ভবনে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) মাঠপর্যায়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠকে সূচনা বক্তব্যে সিইসি এসব কথা বলেন।
বৈঠকে সিইসি বলেন, ‘আমাদের সরকারের সহায়তার ওপর নির্ভর করতে হবে। সরকারের জনপ্রশাসন, পুলিশ, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী, তাদের সঙ্গে সমন্বয় করে কীভাবে সুদৃঢ় ও সহজ হবে, তা বের করে নির্বাচনের যে উদ্দেশ্য, অর্থাৎ অবাধে ভোটাধিকার প্রয়োগ করে নির্বাচনের ফলাফল উঠে আসবে, আমরা সেই বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা করব।’

সভা শেষে এক ব্রিফিংয়ে ইসির অতিরিক্ত সচিব অশোক কুমার দেবনাথ বলেন, ৬৪ জেলা ও ১০টি আঞ্চলিক নির্বাচন কার্যালয়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে মতবিনিময় হয়েছে। তিনি আরও বলেন, এটা মূলত প্রাথমিক সভা। কিছু জানতে চাওয়া হয়েছে, কিছু নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। মূলত, ভোটার তালিকা, ভোটকেন্দ্রের প্রস্তুতি নিয়ে জানতে চাওয়া হয়েছে। তাঁদের সুনির্দিষ্ট সমস্যা আছে কি না, একেক অঞ্চলে একেক সমস্যা থাকতে পারে। সেটা জানতে চাওয়া হয়েছে।

অশোক কুমার দেবনাথ বলেন, বৈঠকে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সহযোগিতার কথা বলা হয়েছে। জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার—সবার সহযোগিতা নিয়ে তাঁদের কাজ করতে হবে।
কোনো রাজনৈতিক সমস্যার কথা তাঁরা বলেননি। সামনে ডিসি–এসপিদের প্রশিক্ষণের সময় প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেওয়া হবে, এটা প্রশাসনিক বিষয়।

এক প্রশ্নের জবাবে অতিরিক্ত সচিব বলেন, মাঠ কর্মকর্তারা কোনো ঘাটতির কথা উল্লেখ করেননি। নির্বাচনী আচরণবিধি যাতে সবাই মেনে চলে, এ জন্য তাঁরা সবার সহযোগিতা কামনা করেছেন। এ বিষয়েই বেশি জোর দেওয়া হয়েছে। অবস্থা বুঝে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।