ঢাকা ০১:২৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞপ্তি ::
আমাদের নিউজপোর্টালে আপনাকে স্বাগতম... সারাদেশে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে...

রাইসি কি বেঁচে আছেন?

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৯:৩৯:০২ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪ ৩১ বার পড়া হয়েছে

ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসিকে বহনকারী হেলিকপ্টারটি পাওয়া গেছে বলে সংবাদ প্রকাশ করেছে দেশটির স্থানীয় সংবাদমাধ্যম। কিন্তু প্রেসিডেন্ট রাইসি এবং অন্যান্যদের অবস্থা সম্পর্কে কোনো তথ্য এখনো জানা যায়নি।

ব্যাপকভাবে চলছে উদ্ধার অভিযান। এরইমধ্যে বিভিন্ন দেশ সহায়তার হাত বাড়িয়ে দিয়েছে ইরানের দিকে। এর মধ্যে রয়েছে আর্মেনিয়া, আজারবাইজান, ইরাক, কাতার, রাশিয়া, সৌদি আরব এবং তুরস্ক এবং ইউরোপীয় কমিশন।

বিপদের সময় সহমর্মিতা প্রকাশের জন্য এবং পাশে দাড়ানোর জন্য এসব দেশের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছে ইরান।

বুধবার ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় উদ্ধার তৎপরতার আপডেটসহ একটি বিবৃতি দিয়েছে। এতে বলা হয়েছে, রোববার বিকেলে পূর্ব আজারবাইজান প্রদেশের ভারজাঘান অঞ্চলে প্রেসিডেন্ট, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও কয়েকজন সঙ্গীকে বহনকারী একটি হেলিকপ্টার দুর্ভাগ্যজনকভাবে দুর্ঘটনায় পড়ে। প্রতিকূল আবহাওয়া ও পরিবেশ সত্ত্বেও উদ্ধারকারী দলের প্রচেষ্টা আন্তরিকভাবে এবং আশা নিয়ে দুর্ঘটনাস্থলে পৌঁছানোর চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

ইরনা নিউজ জানিয়েছে, যেখানে হেলিকপ্টারটি বিধ্বস্ত হয়েছে সেখানে উদ্ধারকারীরা পায়ে হেঁটে যান। জায়গাটি এতটাই দুর্গম যে সেখানে পৌঁছাতে উদ্ধারকারীদের কয়েক ঘণ্টা সময় লাগবে বলে জানিয়েছিলেন কর্মকর্তারা।

রোববার আজারবাইজানে একটি বাঁধ উদ্বোধন শেষে প্রেসিডেন্ট রাইসি ও পররাষ্ট্রমন্ত্রীসহ অন্যান্য উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা হেলিকপ্টারে করে তাবরিজে যাচ্ছিলেন। সেখানেই এ দুর্ঘটনা ঘটে।

সেখানকার স্থানীয় মানুষজন জানিয়েছেন, তারা প্রচণ্ড জোরে কিছু আছড়ে পড়ার শব্দ শুনতে পেয়েছিলেন। প্রেসিডেন্টের হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হওয়ার তথ্য জানার পরই ঘটনাস্থলে কমান্ডো বাহিনী ও উদ্ধারকারীদের পাঠানো হয়।

এ ঘটনায় প্রশাসনে বিঘ্ন না ঘটানোর আহ্বান জানিয়েছেন দেশটির সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আলি খামেনি।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

রাইসি কি বেঁচে আছেন?

আপডেট সময় : ০৯:৩৯:০২ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪

ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসিকে বহনকারী হেলিকপ্টারটি পাওয়া গেছে বলে সংবাদ প্রকাশ করেছে দেশটির স্থানীয় সংবাদমাধ্যম। কিন্তু প্রেসিডেন্ট রাইসি এবং অন্যান্যদের অবস্থা সম্পর্কে কোনো তথ্য এখনো জানা যায়নি।

ব্যাপকভাবে চলছে উদ্ধার অভিযান। এরইমধ্যে বিভিন্ন দেশ সহায়তার হাত বাড়িয়ে দিয়েছে ইরানের দিকে। এর মধ্যে রয়েছে আর্মেনিয়া, আজারবাইজান, ইরাক, কাতার, রাশিয়া, সৌদি আরব এবং তুরস্ক এবং ইউরোপীয় কমিশন।

বিপদের সময় সহমর্মিতা প্রকাশের জন্য এবং পাশে দাড়ানোর জন্য এসব দেশের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছে ইরান।

বুধবার ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় উদ্ধার তৎপরতার আপডেটসহ একটি বিবৃতি দিয়েছে। এতে বলা হয়েছে, রোববার বিকেলে পূর্ব আজারবাইজান প্রদেশের ভারজাঘান অঞ্চলে প্রেসিডেন্ট, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও কয়েকজন সঙ্গীকে বহনকারী একটি হেলিকপ্টার দুর্ভাগ্যজনকভাবে দুর্ঘটনায় পড়ে। প্রতিকূল আবহাওয়া ও পরিবেশ সত্ত্বেও উদ্ধারকারী দলের প্রচেষ্টা আন্তরিকভাবে এবং আশা নিয়ে দুর্ঘটনাস্থলে পৌঁছানোর চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

ইরনা নিউজ জানিয়েছে, যেখানে হেলিকপ্টারটি বিধ্বস্ত হয়েছে সেখানে উদ্ধারকারীরা পায়ে হেঁটে যান। জায়গাটি এতটাই দুর্গম যে সেখানে পৌঁছাতে উদ্ধারকারীদের কয়েক ঘণ্টা সময় লাগবে বলে জানিয়েছিলেন কর্মকর্তারা।

রোববার আজারবাইজানে একটি বাঁধ উদ্বোধন শেষে প্রেসিডেন্ট রাইসি ও পররাষ্ট্রমন্ত্রীসহ অন্যান্য উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা হেলিকপ্টারে করে তাবরিজে যাচ্ছিলেন। সেখানেই এ দুর্ঘটনা ঘটে।

সেখানকার স্থানীয় মানুষজন জানিয়েছেন, তারা প্রচণ্ড জোরে কিছু আছড়ে পড়ার শব্দ শুনতে পেয়েছিলেন। প্রেসিডেন্টের হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হওয়ার তথ্য জানার পরই ঘটনাস্থলে কমান্ডো বাহিনী ও উদ্ধারকারীদের পাঠানো হয়।

এ ঘটনায় প্রশাসনে বিঘ্ন না ঘটানোর আহ্বান জানিয়েছেন দেশটির সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আলি খামেনি।