ঢাকা ১১:২১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ৫ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞপ্তি ::
আমাদের নিউজপোর্টালে আপনাকে স্বাগতম... সারাদেশে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে...

যশোরে যুবলীগ নেতাকে তাঁর বাড়ির সামনে গুলি করে হত্যা

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০২:০১:২২ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৬ অক্টোবর ২০২৩ ৫০ বার পড়া হয়েছে

যশোরের মনিরামপুর উপজেলায় উদয় শংকর বিশ্বাস (৪৩) নামের এক যুবলীগ নেতাকে তাঁর বাড়ির সামনে গুলি করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। আজ সোমবার সকালে উপজেলার নেহালপুর ইউনিয়নের পাঁচাকড়ি গ্রামের বৈকালী মোড়ে এ ঘটনা ঘটে।

উদয় শংকর বিশ্বাস (৪৩) উপজেলার নেহালপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি ছিলেন। তিনি মনিরামপুর উপজেলার পাঁচাকড়ি গ্রামের রণজিত বিশ্বাসের ছেলে। তিনি নেহালপুর স্কুল অ্যান্ড কলেজের সংস্কৃতি বিষয়ের সহকারী অধ্যাপক এবং টেকারঘাট মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি ছিলেন। সেই সঙ্গে তিনি পাঁচাকড়ি গ্রামের বৈকালী সর্বজনীন পূজা মণ্ডপের সভাপতি ছিলেন।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, আজ সকালে উদয় শংকর বিশ্বাস বাজার করতে বাড়ি থেকে প্রায় এক কিলোমিটার দূরে টেকারঘাট বাজারে যান। বাজার শেষে মোটরসাইকেলে করে তিনি নওয়াপাড়া-কালীবাড়ি সড়ক দিয়ে পাঁচাকড়ি গ্রামের বাড়িতে ফিরছিলেন। সকাল সাড়ে সাতটার দিকে তিনি বাড়ির সামনে বৈকালী মোড়ে পৌঁছান। সেখান থেকে কাঁচা রাস্তা দিয়ে বাড়িতে ঢোকার সময় আগে থেকে সেখানে অবস্থান নেওয়া দুই দুর্বৃত্ত তাঁকে পেছন দিক থেকে গুলি করে পালিয়ে যায়। এতে তিনি রাস্তার ওপর পড়ে যান। স্থানীয় লোকজন তাঁকে উদ্ধার করে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে তিনি মারা যান। তাঁর লাশ খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।
পাঁচাকড়ি গ্রামের বৈকালী মোড়ে চায়ের দোকান আছে বাসুদেব চক্রবর্তীর। তিনি বলেন, সকাল সাড়ে ছয়টার দিকে মোটরসাইকেলে করে দুই ব্যক্তি বৈকালী মোড়ে তাঁর দোকানের সামনে এসে থামেন। তাঁদের একজনের মাথায় হেলমেট ছিল। অপরজনের মাথায় হেলমেট ছিল না। তাঁরা দুজনে দুই কাপ চান খান। চায়ের দাম ১০ টাকা দিয়ে তাঁরা দোকানের আশপাশে ঘোরাঘুরি করছিলেন। সকাল সাড়ে সাতটার দিকে উদয় শংকর বিশ্বাস বাজার করে মোটরসাইকেলে বাড়ি ফিরছিলেন। পাকা সড়ক থেকে বাড়ি ঢোকার সময় তাঁকে পেছন দিক থেকে গুলি করা হয়। গুলির শব্দ শুনে তাঁরা সেখানে দৌড়ে যেতে যেতে ওই দুই ব্যক্তি মোটরসাইকেলে করে পালিয়ে যান।

মনিরামপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ মো. মনিরুজ্জামান বলেন, উদয় শংকর বিশ্বাসকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। পেছন দিক থেকে তাঁকে গুলি করা হতে পারে। একটি গুলি তাঁর শরীরে লেগেছে। বর্তমানে তিনি ঘটনাস্থলে আছেন। কী কারণে তাঁকে হত্যা করা হয়েছে, তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

ডিবির হারুন বলেন, রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে কিশোর গ্যাং সদস্যদের সঙ্গে জড়িত ৩৩ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছৈ। তাদের গ্রেফতার করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের ওয়ারী ও গুলশান বিভাগ। গ্রেফতারদের মধ্যে বেশিরভাগ কিশোর গ্যাং সদস্যের বিরুদ্ধে থানায় মামলা রয়েছে। তিনি জানান, গ্রেফতাররা বাড্ডা, ভাটারা, তুরাগ, তিনশ ফিট ও যাত্রাবাড়ীসহ রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় টার্গেট করা ব্যক্তিদের ইভটিজিং বা কোনো সময় ধাক্কা দেওয়ার ছলে উত্ত্যক্ত করত। এরপর তারা ঘেরাও করে ভুক্তভোগীদের কাছ থেকে মোবাইলফোন এবং নারীদের কাছ থেকে সোনার অলঙ্কার ছিনিয়ে নিত। এ ছাড়া তারা ছিনতাই, চাঁদাবাজি ও চুরির সঙ্গে জড়িত। এসব গ্যাং সদস্য মাদক কারবারের সঙ্গেও জড়িত। ডিবি হারুন জানান, গ্রেফতার কিশোর গ্যাং সদস্যদের জিজ্ঞাসাবাদে কিছু কথিত বড় ভাইয়ের নাম পাওয়া গেছে। বড় ভাইদেরও গ্রেফতার করা হবে। কিশোর গ্যাং সদস্যদের বিরুদ্ধে ডিবির প্রতিটি টিম কাজ করছে।

যশোরে যুবলীগ নেতাকে তাঁর বাড়ির সামনে গুলি করে হত্যা

আপডেট সময় : ০২:০১:২২ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৬ অক্টোবর ২০২৩

যশোরের মনিরামপুর উপজেলায় উদয় শংকর বিশ্বাস (৪৩) নামের এক যুবলীগ নেতাকে তাঁর বাড়ির সামনে গুলি করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। আজ সোমবার সকালে উপজেলার নেহালপুর ইউনিয়নের পাঁচাকড়ি গ্রামের বৈকালী মোড়ে এ ঘটনা ঘটে।

উদয় শংকর বিশ্বাস (৪৩) উপজেলার নেহালপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি ছিলেন। তিনি মনিরামপুর উপজেলার পাঁচাকড়ি গ্রামের রণজিত বিশ্বাসের ছেলে। তিনি নেহালপুর স্কুল অ্যান্ড কলেজের সংস্কৃতি বিষয়ের সহকারী অধ্যাপক এবং টেকারঘাট মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি ছিলেন। সেই সঙ্গে তিনি পাঁচাকড়ি গ্রামের বৈকালী সর্বজনীন পূজা মণ্ডপের সভাপতি ছিলেন।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, আজ সকালে উদয় শংকর বিশ্বাস বাজার করতে বাড়ি থেকে প্রায় এক কিলোমিটার দূরে টেকারঘাট বাজারে যান। বাজার শেষে মোটরসাইকেলে করে তিনি নওয়াপাড়া-কালীবাড়ি সড়ক দিয়ে পাঁচাকড়ি গ্রামের বাড়িতে ফিরছিলেন। সকাল সাড়ে সাতটার দিকে তিনি বাড়ির সামনে বৈকালী মোড়ে পৌঁছান। সেখান থেকে কাঁচা রাস্তা দিয়ে বাড়িতে ঢোকার সময় আগে থেকে সেখানে অবস্থান নেওয়া দুই দুর্বৃত্ত তাঁকে পেছন দিক থেকে গুলি করে পালিয়ে যায়। এতে তিনি রাস্তার ওপর পড়ে যান। স্থানীয় লোকজন তাঁকে উদ্ধার করে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে তিনি মারা যান। তাঁর লাশ খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।
পাঁচাকড়ি গ্রামের বৈকালী মোড়ে চায়ের দোকান আছে বাসুদেব চক্রবর্তীর। তিনি বলেন, সকাল সাড়ে ছয়টার দিকে মোটরসাইকেলে করে দুই ব্যক্তি বৈকালী মোড়ে তাঁর দোকানের সামনে এসে থামেন। তাঁদের একজনের মাথায় হেলমেট ছিল। অপরজনের মাথায় হেলমেট ছিল না। তাঁরা দুজনে দুই কাপ চান খান। চায়ের দাম ১০ টাকা দিয়ে তাঁরা দোকানের আশপাশে ঘোরাঘুরি করছিলেন। সকাল সাড়ে সাতটার দিকে উদয় শংকর বিশ্বাস বাজার করে মোটরসাইকেলে বাড়ি ফিরছিলেন। পাকা সড়ক থেকে বাড়ি ঢোকার সময় তাঁকে পেছন দিক থেকে গুলি করা হয়। গুলির শব্দ শুনে তাঁরা সেখানে দৌড়ে যেতে যেতে ওই দুই ব্যক্তি মোটরসাইকেলে করে পালিয়ে যান।

মনিরামপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ মো. মনিরুজ্জামান বলেন, উদয় শংকর বিশ্বাসকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। পেছন দিক থেকে তাঁকে গুলি করা হতে পারে। একটি গুলি তাঁর শরীরে লেগেছে। বর্তমানে তিনি ঘটনাস্থলে আছেন। কী কারণে তাঁকে হত্যা করা হয়েছে, তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।