ঢাকা ০৫:৫৬ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞপ্তি ::
আমাদের নিউজপোর্টালে আপনাকে স্বাগতম... সারাদেশে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে...

ভোলা প্রতিনিধিঃ জলবায়ু পরিবর্তনে নারী ও কিশোরীদের সহনশীলতা বৃদ্ধি প্রকল্পের উদ্বোধনী সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৬:১৭:৩৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ১৭১ বার পড়া হয়েছে

নারী ও কিাশোরীদের সহনশীলতা বৃদ্ধিতে প্রকল্প উদ্বোধন

ভোলা প্রতিনিধিঃ জলবায়ু পরিবর্তনে নারী ও কিশোরীদের সহনশীলতা বৃদ্ধি প্রকল্পের উদ্বোধনী সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার (২৯আগস্ট) সকাল ১০টায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হলরুমে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। প্রকল্পটি স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যান মন্ত্রনালয়ের জলবায়ু পরিবর্তন ও স্বাস্থ্য সুরক্ষা ইউনিটের তত্ত্ববধানে এফসিডিও-র অর্থায়নে ইউএনএফপিএ এর কারিগরি সহযোগীতায় পার্টনার্স ইন হেলথ এন্ড ডেভেলপমেন্ট (পিএইচডি) প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করছে। সভায় উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. শোভন কুমার বসাক এর সভাপতিত্বে, প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অধ্যাপক ড. ইকবাল কবীর চৌধুরী, পরিচালক ও সমন্বয়কারী জলবায়ু পরিবর্তন ও স্বাস্থ্য সুরক্ষা ইউনিট, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যান মন্ত্রনালয়। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা সিভিল সার্জন ডা. একেএম শফিকুজ্জামান, জেলা পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের উপ-পরিচালক তাপস কুমার শীল, উপজেলা চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদীন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নওরীন হক। সভায় পিএইচডি’র অতিরিক্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. সাখাওয়াত হোসেন ও সিনিয়র ডেপুটি ডিরেক্টর ফাতেমা শওকত জাহান রোজীর প্রকল্পের বিষয় বস্তু আলোকপাত করে। এসময় বক্তারা বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাবে নারী ও কিশোরীদের স্বাস্থ্য ঝুঁকি স্পষ্ট হয়ে উঠেছে। চরফ্যাশন উপজেলার বিচ্ছিন্ন চরাঞ্চলগুলোতে নারী, কিশোরী, শিশু, প্রতিবন্ধী ও বৃদ্ধ মানুষগুলো এ ঝুঁকির আওতায় রয়েছে। ঝড় ও জলোচ্ছাসসহ বিভিন্ন জলবায়ু প্রভাবে কারণে চরাঞ্চলের নারী ও কিশোরীদের প্রজনন স্বাস্থ্য সেবার উন্নয়নে পিএইচডি এ প্রকল্পে কাজ করে যাবে বলে বক্তারা আশা প্রকাশ করেন। এছাড়াও প্রাকৃতিক দুর্যোগ প্রবণ এলাকায় দূর্যোগের আগেই যেন নারী ও কিশোরীরা সহজে স্বাস্থ্যসেবা পেতে পারে সেই দিকগুলোর প্রতি প্রকল্প সংশ্লিষ্টরাসহ সকলকে এগিয়ে আসার আহবান জানান। এমওডিসি ডা.আশরাফুল ইসলাম সুমন এর উপস্থাপনায় আরও উপস্থিত ছিলেন, নুরাবাদ,হাজারীগঞ্জ, রসুলপুর ও চরমাদ্রাজ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান, সাংবাদিক, এনজিও প্রতিনিধি, সরকারী ও পিএইচডি-র বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা ও কর্মচারী বৃন্দ।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

ভোলা প্রতিনিধিঃ জলবায়ু পরিবর্তনে নারী ও কিশোরীদের সহনশীলতা বৃদ্ধি প্রকল্পের উদ্বোধনী সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আপডেট সময় : ০৬:১৭:৩৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩

নারী ও কিাশোরীদের সহনশীলতা বৃদ্ধিতে প্রকল্প উদ্বোধন

ভোলা প্রতিনিধিঃ জলবায়ু পরিবর্তনে নারী ও কিশোরীদের সহনশীলতা বৃদ্ধি প্রকল্পের উদ্বোধনী সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার (২৯আগস্ট) সকাল ১০টায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হলরুমে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। প্রকল্পটি স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যান মন্ত্রনালয়ের জলবায়ু পরিবর্তন ও স্বাস্থ্য সুরক্ষা ইউনিটের তত্ত্ববধানে এফসিডিও-র অর্থায়নে ইউএনএফপিএ এর কারিগরি সহযোগীতায় পার্টনার্স ইন হেলথ এন্ড ডেভেলপমেন্ট (পিএইচডি) প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করছে। সভায় উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. শোভন কুমার বসাক এর সভাপতিত্বে, প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অধ্যাপক ড. ইকবাল কবীর চৌধুরী, পরিচালক ও সমন্বয়কারী জলবায়ু পরিবর্তন ও স্বাস্থ্য সুরক্ষা ইউনিট, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যান মন্ত্রনালয়। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা সিভিল সার্জন ডা. একেএম শফিকুজ্জামান, জেলা পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের উপ-পরিচালক তাপস কুমার শীল, উপজেলা চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদীন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নওরীন হক। সভায় পিএইচডি’র অতিরিক্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. সাখাওয়াত হোসেন ও সিনিয়র ডেপুটি ডিরেক্টর ফাতেমা শওকত জাহান রোজীর প্রকল্পের বিষয় বস্তু আলোকপাত করে। এসময় বক্তারা বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাবে নারী ও কিশোরীদের স্বাস্থ্য ঝুঁকি স্পষ্ট হয়ে উঠেছে। চরফ্যাশন উপজেলার বিচ্ছিন্ন চরাঞ্চলগুলোতে নারী, কিশোরী, শিশু, প্রতিবন্ধী ও বৃদ্ধ মানুষগুলো এ ঝুঁকির আওতায় রয়েছে। ঝড় ও জলোচ্ছাসসহ বিভিন্ন জলবায়ু প্রভাবে কারণে চরাঞ্চলের নারী ও কিশোরীদের প্রজনন স্বাস্থ্য সেবার উন্নয়নে পিএইচডি এ প্রকল্পে কাজ করে যাবে বলে বক্তারা আশা প্রকাশ করেন। এছাড়াও প্রাকৃতিক দুর্যোগ প্রবণ এলাকায় দূর্যোগের আগেই যেন নারী ও কিশোরীরা সহজে স্বাস্থ্যসেবা পেতে পারে সেই দিকগুলোর প্রতি প্রকল্প সংশ্লিষ্টরাসহ সকলকে এগিয়ে আসার আহবান জানান। এমওডিসি ডা.আশরাফুল ইসলাম সুমন এর উপস্থাপনায় আরও উপস্থিত ছিলেন, নুরাবাদ,হাজারীগঞ্জ, রসুলপুর ও চরমাদ্রাজ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান, সাংবাদিক, এনজিও প্রতিনিধি, সরকারী ও পিএইচডি-র বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা ও কর্মচারী বৃন্দ।