ঢাকা ০৩:২৮ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞপ্তি ::
আমাদের নিউজপোর্টালে আপনাকে স্বাগতম... সারাদেশে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে...

বোয়িংয়ের ১৭১টি বিমান গ্রাউন্ডেড করার নির্দেশ যুক্তরাষ্ট্র কর্তৃপক্ষের

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৪:২৪:১৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ৮ জানুয়ারী ২০২৪ ২২১ বার পড়া হয়েছে

আলাস্কা এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইট জরুরি অবতরণে বাধ্য হবার পর যুক্তরাষ্ট্রের বিমান চলাচল নিয়ন্ত্রক সংস্থা দ্য ফেডারেল এভিয়েশন অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (এফএএ) বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স ৯ মডেলের বোয়িং কোম্পানির উড়োজাহাজকে গ্রাউন্ডেড করার নির্দেশ দিয়েছে।

 

সংস্থাটি বলছে, এ নির্দেশ ১৭১ টি বোয়িং উড়োজাহাজের ওপর কার্যকর হবে।

 

শুক্রবার আলাস্কা এয়ারলাইন্সের বিমানটি যুক্তরাষ্ট্রের অরেগন উড্ডয়নের পরপরই জরুরি অবতরণে বাধ্য হয়।

 

ইউনাইটেড এয়ারলাইন্স বলছে এফএএ’র নির্দেশনা অনুযায়ী তারা এ ধরণের ৭৯টি বিমানের পরিদর্শন সম্পন্নকরেছে।

 

পরে সংস্থাটির এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, শনিবার ৬০টির মতো ফ্লাইট বাতিলের পর কিছু উড়োজাহাজকে সার্ভিস অর্থাৎ সেবাদান থেকে সরিয়ে নেয়া হতে পারে।

 

এর আগে এফএএ বলেছে, যুক্তরাষ্ট্রে কোন এয়ারলাইন কোম্পানি পরিচালনা করে বা যুক্তরাষ্ট্রের ভূখণ্ডে ব্যবহৃত হয় বোয়িং কোম্পানির এমন কিছু নির্দিষ্ট ধরণের উড়োজাহাজ সাময়িকভাবে গ্রাউন্ডেড করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

 

তারা তখন জানিয়েছিলো যে প্রতিটি বিমান পরিদর্শনের জন্য চার থেকে আট ঘণ্টা পর্যন্ত সময় লাগতে পারে।

 

ওদিকে যুক্তরাজ্যের সিভিল এভিয়েশন অথরিটি (সিএএ) নিশ্চিত করেছে যে ৭৩৭ ম্যাক্স ৯ মডেলের কোন উড়োজাহাজ দেশটিতে নিবন্ধিত নেই।

 

“আমরা যুক্তরাজ্যের নয় কিংবা বিদেশী অনুমোদিত বিমানগুলোকে যুক্তরাজ্যের আকাশসীমায় আসার আগে প্রয়োজনীয় পরিদর্শন করার জন্য লিখিতভাবে জানিয়েছি,” সামাজিক মাধ্যম ‘এক্স’ এ জানিয়েছে সংস্থাটি।

 

শুক্রবার অরেগন রাজ্যের পোর্টল্যান্ড থেকে আলাস্কা এয়ারলাইন্সের ফ্লাইট ক্যালিফোর্নিয়ার অনটারিওতে যাচ্ছিলো। ১৬ হাজার ফুট উচ্চতায় ওঠার পর এটি জরুরি অবতরণে যেতে হয়।

 

বিমানটিতে তখন ১৭৭ জন যাত্রী ও ক্রু ছিলো। তবে এটি নিরাপদে পোর্টল্যান্ডে ফিরে এসে অবতরণ করতে সক্ষম হয়।

 

বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত ছবিতে দেখা যাচ্ছে বিমানের ভেতর থেকে রাতের আকাশ দেখা যাচ্ছে এবং আরও কিছু জিনিসপত্র ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে।

 

তবে এতে কোন হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। যদিও কাঠামোগত ক্ষতির তাৎক্ষনিক কোন কারণও শনাক্ত করা যায়নি।

ইভান স্মিথ নামক একজন যাত্রী বলেছেন, “বিমানটির বাম দিকে পেছনে আঘাত করার মতো শব্দ হয়েছে—তখন সব মাস্ক নেমে আসে।”

 

একটি অডিও ক্লিপে এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোল রুমের সাথে কথা বলতে শোনা গেছে।

 

“আমরা জরুরি অবস্থায়। আমাদের ফিরে যেতে হবে”।

 

ছবি দেখে মনে হচ্ছে বিমানটির পাখা ও ইঞ্জিনের পেছনের দিকে তৃতীয় অংশটি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

 

সেখানে একটি অংশ আছে যা অতিরিক্ত জরুরি বহির্গমন পথ হিসেবে ব্যবহৃত হতে পারে। তবে আলাস্কা এ অংশটিকে সেভাবে ব্যবহার করে না।

 

টেরি টোজার একজন সাবেক পাইলট ও বিমান নিরাপত্তা বিষয়ক লেখক। তার মতে ওই অংশটুকু যদি জরুরি বহির্গমন পথ হিসেবে ব্যবহৃত না হয় তাহলে সেটিকে যথাযথভাবে আটকে রাখতে হবে।

কিন্তু ওই অংশটুকু ছুটে যাওয়ার পর বিমানটি উড়লো কীভাবে এ প্রশ্ন তুলে তিনি বলেন ‘কাছাকাছি কেউ বসলে তাদের জন্য খুবই ঝুঁকির ব্যাপার ছিলো এটি’।

 

“সৌভাগ্যবশত, কেউ সেখানে জানালার পাশে বসেনি। তারা যদি বেল্ট ছাড়া থাকতো তাহলে উড়ে যেতো,” বলছিলেন তিনি।

 

প্রাথমিকভাবে ৬৫টি বিমান গ্রাউন্ডিং করে আলাস্কা এয়ারলাইন্সের সিইও বেন মিনিকুচ্চি বলেছেন “নিরাপত্তা পরিদর্শন ও যথাযথ রক্ষণাবেক্ষণ শেষ করার পরেই কেবল প্রতিটি এয়ারক্রাফট সার্ভিসে ফিরে আসবে”।

 

ওদিকে এক বিবৃতিতে বোয়িং বলেছে তারা এফএএ’র সিদ্ধান্তকে সমর্থন করে এবং তারা আলাস্কা এয়ারলাইন্সের ঘটনাটি তদন্ত কার্যক্রমে সহায়তা করছে।

 

“নিরাপত্তাই আমাদের কাছে সবচেয়ে বেশি অগ্রাধিকার পায় এবং যা ঘটেছে সেজন্য আমাদের গ্রাহক ও যাত্রীদের কাছে দু:খ প্রকাশ করছি,” বলেছে বোয়িং।

 

তবে বোয়িং এর সবচেয়ে বেশি বিক্রিত এই মডেলের বিমানটিতে এটা সর্বশেষ সমস্যা। এর আগে ২০১৯ ও ২০১৯ সালেও এ মডেলের বিমান গ্রাউন্ডেড করতে হয়েছিলো

 

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

বোয়িংয়ের ১৭১টি বিমান গ্রাউন্ডেড করার নির্দেশ যুক্তরাষ্ট্র কর্তৃপক্ষের

আপডেট সময় : ০৪:২৪:১৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ৮ জানুয়ারী ২০২৪

আলাস্কা এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইট জরুরি অবতরণে বাধ্য হবার পর যুক্তরাষ্ট্রের বিমান চলাচল নিয়ন্ত্রক সংস্থা দ্য ফেডারেল এভিয়েশন অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (এফএএ) বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স ৯ মডেলের বোয়িং কোম্পানির উড়োজাহাজকে গ্রাউন্ডেড করার নির্দেশ দিয়েছে।

 

সংস্থাটি বলছে, এ নির্দেশ ১৭১ টি বোয়িং উড়োজাহাজের ওপর কার্যকর হবে।

 

শুক্রবার আলাস্কা এয়ারলাইন্সের বিমানটি যুক্তরাষ্ট্রের অরেগন উড্ডয়নের পরপরই জরুরি অবতরণে বাধ্য হয়।

 

ইউনাইটেড এয়ারলাইন্স বলছে এফএএ’র নির্দেশনা অনুযায়ী তারা এ ধরণের ৭৯টি বিমানের পরিদর্শন সম্পন্নকরেছে।

 

পরে সংস্থাটির এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, শনিবার ৬০টির মতো ফ্লাইট বাতিলের পর কিছু উড়োজাহাজকে সার্ভিস অর্থাৎ সেবাদান থেকে সরিয়ে নেয়া হতে পারে।

 

এর আগে এফএএ বলেছে, যুক্তরাষ্ট্রে কোন এয়ারলাইন কোম্পানি পরিচালনা করে বা যুক্তরাষ্ট্রের ভূখণ্ডে ব্যবহৃত হয় বোয়িং কোম্পানির এমন কিছু নির্দিষ্ট ধরণের উড়োজাহাজ সাময়িকভাবে গ্রাউন্ডেড করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

 

তারা তখন জানিয়েছিলো যে প্রতিটি বিমান পরিদর্শনের জন্য চার থেকে আট ঘণ্টা পর্যন্ত সময় লাগতে পারে।

 

ওদিকে যুক্তরাজ্যের সিভিল এভিয়েশন অথরিটি (সিএএ) নিশ্চিত করেছে যে ৭৩৭ ম্যাক্স ৯ মডেলের কোন উড়োজাহাজ দেশটিতে নিবন্ধিত নেই।

 

“আমরা যুক্তরাজ্যের নয় কিংবা বিদেশী অনুমোদিত বিমানগুলোকে যুক্তরাজ্যের আকাশসীমায় আসার আগে প্রয়োজনীয় পরিদর্শন করার জন্য লিখিতভাবে জানিয়েছি,” সামাজিক মাধ্যম ‘এক্স’ এ জানিয়েছে সংস্থাটি।

 

শুক্রবার অরেগন রাজ্যের পোর্টল্যান্ড থেকে আলাস্কা এয়ারলাইন্সের ফ্লাইট ক্যালিফোর্নিয়ার অনটারিওতে যাচ্ছিলো। ১৬ হাজার ফুট উচ্চতায় ওঠার পর এটি জরুরি অবতরণে যেতে হয়।

 

বিমানটিতে তখন ১৭৭ জন যাত্রী ও ক্রু ছিলো। তবে এটি নিরাপদে পোর্টল্যান্ডে ফিরে এসে অবতরণ করতে সক্ষম হয়।

 

বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত ছবিতে দেখা যাচ্ছে বিমানের ভেতর থেকে রাতের আকাশ দেখা যাচ্ছে এবং আরও কিছু জিনিসপত্র ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে।

 

তবে এতে কোন হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। যদিও কাঠামোগত ক্ষতির তাৎক্ষনিক কোন কারণও শনাক্ত করা যায়নি।

ইভান স্মিথ নামক একজন যাত্রী বলেছেন, “বিমানটির বাম দিকে পেছনে আঘাত করার মতো শব্দ হয়েছে—তখন সব মাস্ক নেমে আসে।”

 

একটি অডিও ক্লিপে এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোল রুমের সাথে কথা বলতে শোনা গেছে।

 

“আমরা জরুরি অবস্থায়। আমাদের ফিরে যেতে হবে”।

 

ছবি দেখে মনে হচ্ছে বিমানটির পাখা ও ইঞ্জিনের পেছনের দিকে তৃতীয় অংশটি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

 

সেখানে একটি অংশ আছে যা অতিরিক্ত জরুরি বহির্গমন পথ হিসেবে ব্যবহৃত হতে পারে। তবে আলাস্কা এ অংশটিকে সেভাবে ব্যবহার করে না।

 

টেরি টোজার একজন সাবেক পাইলট ও বিমান নিরাপত্তা বিষয়ক লেখক। তার মতে ওই অংশটুকু যদি জরুরি বহির্গমন পথ হিসেবে ব্যবহৃত না হয় তাহলে সেটিকে যথাযথভাবে আটকে রাখতে হবে।

কিন্তু ওই অংশটুকু ছুটে যাওয়ার পর বিমানটি উড়লো কীভাবে এ প্রশ্ন তুলে তিনি বলেন ‘কাছাকাছি কেউ বসলে তাদের জন্য খুবই ঝুঁকির ব্যাপার ছিলো এটি’।

 

“সৌভাগ্যবশত, কেউ সেখানে জানালার পাশে বসেনি। তারা যদি বেল্ট ছাড়া থাকতো তাহলে উড়ে যেতো,” বলছিলেন তিনি।

 

প্রাথমিকভাবে ৬৫টি বিমান গ্রাউন্ডিং করে আলাস্কা এয়ারলাইন্সের সিইও বেন মিনিকুচ্চি বলেছেন “নিরাপত্তা পরিদর্শন ও যথাযথ রক্ষণাবেক্ষণ শেষ করার পরেই কেবল প্রতিটি এয়ারক্রাফট সার্ভিসে ফিরে আসবে”।

 

ওদিকে এক বিবৃতিতে বোয়িং বলেছে তারা এফএএ’র সিদ্ধান্তকে সমর্থন করে এবং তারা আলাস্কা এয়ারলাইন্সের ঘটনাটি তদন্ত কার্যক্রমে সহায়তা করছে।

 

“নিরাপত্তাই আমাদের কাছে সবচেয়ে বেশি অগ্রাধিকার পায় এবং যা ঘটেছে সেজন্য আমাদের গ্রাহক ও যাত্রীদের কাছে দু:খ প্রকাশ করছি,” বলেছে বোয়িং।

 

তবে বোয়িং এর সবচেয়ে বেশি বিক্রিত এই মডেলের বিমানটিতে এটা সর্বশেষ সমস্যা। এর আগে ২০১৯ ও ২০১৯ সালেও এ মডেলের বিমান গ্রাউন্ডেড করতে হয়েছিলো