ঢাকা ১১:১৮ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ৫ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞপ্তি ::
আমাদের নিউজপোর্টালে আপনাকে স্বাগতম... সারাদেশে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে...

বিদ্যুৎকেন্দ্রের ভাড়ার তথ্য নিয়েছে আইএমএফ

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০২:২৯:৫৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৩ অক্টোবর ২০২৩ ৫৩ বার পড়া হয়েছে

বিদ্যুৎ খাতের আয়-ব্যয় এবং বিদ্যুৎকেন্দ্রের ভাড়ার (ক্যাপাসিটি চার্জ) হিসাব নিয়েছে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (আইএমএফ)। বিদ্যুৎ বিভাগ ও বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের (পিডিবি) সঙ্গে গতকাল বৃহস্পতিবার আলাদা দুটি বৈঠক করে এসব হিসাব নিয়েছে ঢাকা সফররত আইএমএফের প্রতিনিধিদল। বিদ্যুৎ খাতের পরিকল্পনা, নবায়নযোগ্য জ্বালানি থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদনের বিষয়েও জানতে চেয়েছে তারা।
গতকাল সকালে বিদ্যুৎ বিভাগের জ্যেষ্ঠ সচিব হাবিবুর রহমানের সঙ্গে বৈঠক করে আইএমএফের প্রতিনিধিদল। দুপুরের পর বিদ্যুৎ ভবনে পিডিবির চেয়ারম্যান মাহবুবুর রহমানের সঙ্গে বৈঠক করে তারা। বিদ্যুৎ খাতের আর্থিক পরিস্থিতি, বাজেট বাস্তবায়ন, বিদ্যুতের সর্বশেষ মূল্যবৃদ্ধি ও বর্তমান মূল্যের সঙ্গে উৎপাদন খরচের ঘাটতি, ভবিষ্যৎ মূল্য সমন্বয়ের পরিকল্পনা বিষয়ে জানতে চেয়েছে আইএমএফ।
বিদ্যুৎ বিভাগের সঙ্গে বৈঠকে বেসরকারি খাতের বিদ্যুৎকেন্দ্রের সঙ্গে চুক্তি এবং বিদ্যুৎকেন্দ্রের ভাড়ারও তথ্য নিয়েছে তারা। বিদ্যুৎ খাতের বড় প্রকল্পের অবস্থা, দক্ষতা উন্নয়নে প্রয়োজনীয়তা বিষয়েও জানতে চেয়েছে তারা। এরপর মূল্য সমন্বয়ের বিষয়ে পিডিবির কাছেও জানতে চেয়েছে আইএমএফ প্রতিনিধিদল। বিদ্যুৎ বিভাগের কাছে রাখা প্রশ্ন পিডিবির কাছেও করেছে তারা। এর সঙ্গে লোডশেডিংয়ের বিষয়েও জানতে চেয়েছে তারা।
এর আগে গত বুধবার বাংলাদেশ তেল, গ্যাস, খনিজ সম্পদ করপোরেশন-পেট্রোবাংলা ও বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশনের (বিপিসি) সঙ্গে বৈঠক করেছে আইএমএফের প্রতিনিধিদলটি। ডিজেল, পেট্রল, অকটেনের মতো জ্বালানি তেলের দাম নিয়মিত সমন্বয় চায় আইএমএফ। বিশ্ববাজারের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে স্বয়ংক্রিয় পদ্ধতিতে দাম নির্ধারণের কথা বলেছে তারা। সেপ্টেম্বরের মধ্যে জ্বালানি তেলের দাম সমন্বয়ের স্বয়ংক্রিয় প্রক্রিয়া চূড়ান্ত করার কথা বলা হয়েছিল এর আগে আইএমএফ প্রতিনিধিদলের বৈঠকে। এবার তার অগ্রগতি জানতে চেয়েছে তারা। দাম নির্ধারণে বিপিসি একটি খসড়া সূত্র তৈরি করেছে ইতিমধ্যে। তবে এটি চূড়ান্ত হতে আরও কয়েক মাস সময় লাগবে বলে জানানো হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

ডিবির হারুন বলেন, রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে কিশোর গ্যাং সদস্যদের সঙ্গে জড়িত ৩৩ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছৈ। তাদের গ্রেফতার করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের ওয়ারী ও গুলশান বিভাগ। গ্রেফতারদের মধ্যে বেশিরভাগ কিশোর গ্যাং সদস্যের বিরুদ্ধে থানায় মামলা রয়েছে। তিনি জানান, গ্রেফতাররা বাড্ডা, ভাটারা, তুরাগ, তিনশ ফিট ও যাত্রাবাড়ীসহ রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় টার্গেট করা ব্যক্তিদের ইভটিজিং বা কোনো সময় ধাক্কা দেওয়ার ছলে উত্ত্যক্ত করত। এরপর তারা ঘেরাও করে ভুক্তভোগীদের কাছ থেকে মোবাইলফোন এবং নারীদের কাছ থেকে সোনার অলঙ্কার ছিনিয়ে নিত। এ ছাড়া তারা ছিনতাই, চাঁদাবাজি ও চুরির সঙ্গে জড়িত। এসব গ্যাং সদস্য মাদক কারবারের সঙ্গেও জড়িত। ডিবি হারুন জানান, গ্রেফতার কিশোর গ্যাং সদস্যদের জিজ্ঞাসাবাদে কিছু কথিত বড় ভাইয়ের নাম পাওয়া গেছে। বড় ভাইদেরও গ্রেফতার করা হবে। কিশোর গ্যাং সদস্যদের বিরুদ্ধে ডিবির প্রতিটি টিম কাজ করছে।

বিদ্যুৎকেন্দ্রের ভাড়ার তথ্য নিয়েছে আইএমএফ

আপডেট সময় : ০২:২৯:৫৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৩ অক্টোবর ২০২৩

বিদ্যুৎ খাতের আয়-ব্যয় এবং বিদ্যুৎকেন্দ্রের ভাড়ার (ক্যাপাসিটি চার্জ) হিসাব নিয়েছে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (আইএমএফ)। বিদ্যুৎ বিভাগ ও বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের (পিডিবি) সঙ্গে গতকাল বৃহস্পতিবার আলাদা দুটি বৈঠক করে এসব হিসাব নিয়েছে ঢাকা সফররত আইএমএফের প্রতিনিধিদল। বিদ্যুৎ খাতের পরিকল্পনা, নবায়নযোগ্য জ্বালানি থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদনের বিষয়েও জানতে চেয়েছে তারা।
গতকাল সকালে বিদ্যুৎ বিভাগের জ্যেষ্ঠ সচিব হাবিবুর রহমানের সঙ্গে বৈঠক করে আইএমএফের প্রতিনিধিদল। দুপুরের পর বিদ্যুৎ ভবনে পিডিবির চেয়ারম্যান মাহবুবুর রহমানের সঙ্গে বৈঠক করে তারা। বিদ্যুৎ খাতের আর্থিক পরিস্থিতি, বাজেট বাস্তবায়ন, বিদ্যুতের সর্বশেষ মূল্যবৃদ্ধি ও বর্তমান মূল্যের সঙ্গে উৎপাদন খরচের ঘাটতি, ভবিষ্যৎ মূল্য সমন্বয়ের পরিকল্পনা বিষয়ে জানতে চেয়েছে আইএমএফ।
বিদ্যুৎ বিভাগের সঙ্গে বৈঠকে বেসরকারি খাতের বিদ্যুৎকেন্দ্রের সঙ্গে চুক্তি এবং বিদ্যুৎকেন্দ্রের ভাড়ারও তথ্য নিয়েছে তারা। বিদ্যুৎ খাতের বড় প্রকল্পের অবস্থা, দক্ষতা উন্নয়নে প্রয়োজনীয়তা বিষয়েও জানতে চেয়েছে তারা। এরপর মূল্য সমন্বয়ের বিষয়ে পিডিবির কাছেও জানতে চেয়েছে আইএমএফ প্রতিনিধিদল। বিদ্যুৎ বিভাগের কাছে রাখা প্রশ্ন পিডিবির কাছেও করেছে তারা। এর সঙ্গে লোডশেডিংয়ের বিষয়েও জানতে চেয়েছে তারা।
এর আগে গত বুধবার বাংলাদেশ তেল, গ্যাস, খনিজ সম্পদ করপোরেশন-পেট্রোবাংলা ও বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশনের (বিপিসি) সঙ্গে বৈঠক করেছে আইএমএফের প্রতিনিধিদলটি। ডিজেল, পেট্রল, অকটেনের মতো জ্বালানি তেলের দাম নিয়মিত সমন্বয় চায় আইএমএফ। বিশ্ববাজারের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে স্বয়ংক্রিয় পদ্ধতিতে দাম নির্ধারণের কথা বলেছে তারা। সেপ্টেম্বরের মধ্যে জ্বালানি তেলের দাম সমন্বয়ের স্বয়ংক্রিয় প্রক্রিয়া চূড়ান্ত করার কথা বলা হয়েছিল এর আগে আইএমএফ প্রতিনিধিদলের বৈঠকে। এবার তার অগ্রগতি জানতে চেয়েছে তারা। দাম নির্ধারণে বিপিসি একটি খসড়া সূত্র তৈরি করেছে ইতিমধ্যে। তবে এটি চূড়ান্ত হতে আরও কয়েক মাস সময় লাগবে বলে জানানো হয়েছে।