ঢাকা ১১:৪৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ৫ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞপ্তি ::
আমাদের নিউজপোর্টালে আপনাকে স্বাগতম... সারাদেশে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে...

বাগমারায় রাতে নিখোঁজ বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী, সকালে পুকুরে পাওয়া গেল লাশ

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৪:৫৫:২২ অপরাহ্ন, শনিবার, ২১ অক্টোবর ২০২৩ ৪৮ বার পড়া হয়েছে

রাজশাহীর বাগমারা উপজেলায় পুকুর থেকে বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী এক ব্যক্তির ভাসমান লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। গতকাল শুক্রবার রাতে নিখোঁজের পর আজ শনিবার সকালে উপজেলার মাড়িয়া ইউনিয়নের বৈলসিংহ গ্রামের বাড়ির পাশের একটি পুকুরে লাশটি পাওয়া যায়।

মারা যাওয়া ব্যক্তির নাম আবু বাক্কার (৫৩)। তিনি বাগমারা উপজেলার মাড়িয়া ইউনিয়নের বৈলসিংহ গ্রামের বাসিন্দা। তিনি বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী ছিলেন।

স্বজন ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গতকাল সন্ধ্যায় বাড়ি থেকে বের হন আবু বাক্কার। স্থানীয় লোকজন সন্ধ্যায় তাঁকে বৈলসিংহ মোড়ে দেখেছেন। এর পর আর তাঁকে দেখা যায়নি, বাড়িতেও ফেরেননি। রাতভর পরিবারের লোকজন বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজি করেও পাননি। আজ শনিবার সকাল সাড়ে আটটার দিকে বাড়ির পাশের পুকুরের পানিতে আবু বাক্কারের লাশ ভাসতে দেখা যায়। পরে পুকুর থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়।
আবু বাক্কারের ভাই রইস উদ্দিন প্রথম আলোকে বলেন, তাঁর ভাই বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী ও মৃগী রোগী ছিলেন। মাঝেমধ্যে অস্বাভাবিক আচরণ করতেন। রাতে পুকুরে কোনো কাজে গিয়ে পানিতে ডুবে মারা যেতে পারেন। তবে তাঁর ভাইকে কেউ মেরে ফেলেননি। কারণ, মেরে ফেলার কোনো আলামত নেই। কারও প্রতি কোনো সন্দেহ বা অভিযোগও নেই।
বাগমারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিনুল ইসলাম বলেন, আবু বাক্কার মৃগী রোগী ছিলেন। মানসিকভাবে সুস্থও ছিলেন না। এ ঘটনায় পরিবারের পক্ষ থেকে কোনো অভিযোগ নেই।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

ডিবির হারুন বলেন, রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে কিশোর গ্যাং সদস্যদের সঙ্গে জড়িত ৩৩ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছৈ। তাদের গ্রেফতার করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের ওয়ারী ও গুলশান বিভাগ। গ্রেফতারদের মধ্যে বেশিরভাগ কিশোর গ্যাং সদস্যের বিরুদ্ধে থানায় মামলা রয়েছে। তিনি জানান, গ্রেফতাররা বাড্ডা, ভাটারা, তুরাগ, তিনশ ফিট ও যাত্রাবাড়ীসহ রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় টার্গেট করা ব্যক্তিদের ইভটিজিং বা কোনো সময় ধাক্কা দেওয়ার ছলে উত্ত্যক্ত করত। এরপর তারা ঘেরাও করে ভুক্তভোগীদের কাছ থেকে মোবাইলফোন এবং নারীদের কাছ থেকে সোনার অলঙ্কার ছিনিয়ে নিত। এ ছাড়া তারা ছিনতাই, চাঁদাবাজি ও চুরির সঙ্গে জড়িত। এসব গ্যাং সদস্য মাদক কারবারের সঙ্গেও জড়িত। ডিবি হারুন জানান, গ্রেফতার কিশোর গ্যাং সদস্যদের জিজ্ঞাসাবাদে কিছু কথিত বড় ভাইয়ের নাম পাওয়া গেছে। বড় ভাইদেরও গ্রেফতার করা হবে। কিশোর গ্যাং সদস্যদের বিরুদ্ধে ডিবির প্রতিটি টিম কাজ করছে।

বাগমারায় রাতে নিখোঁজ বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী, সকালে পুকুরে পাওয়া গেল লাশ

আপডেট সময় : ০৪:৫৫:২২ অপরাহ্ন, শনিবার, ২১ অক্টোবর ২০২৩

রাজশাহীর বাগমারা উপজেলায় পুকুর থেকে বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী এক ব্যক্তির ভাসমান লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। গতকাল শুক্রবার রাতে নিখোঁজের পর আজ শনিবার সকালে উপজেলার মাড়িয়া ইউনিয়নের বৈলসিংহ গ্রামের বাড়ির পাশের একটি পুকুরে লাশটি পাওয়া যায়।

মারা যাওয়া ব্যক্তির নাম আবু বাক্কার (৫৩)। তিনি বাগমারা উপজেলার মাড়িয়া ইউনিয়নের বৈলসিংহ গ্রামের বাসিন্দা। তিনি বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী ছিলেন।

স্বজন ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গতকাল সন্ধ্যায় বাড়ি থেকে বের হন আবু বাক্কার। স্থানীয় লোকজন সন্ধ্যায় তাঁকে বৈলসিংহ মোড়ে দেখেছেন। এর পর আর তাঁকে দেখা যায়নি, বাড়িতেও ফেরেননি। রাতভর পরিবারের লোকজন বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজি করেও পাননি। আজ শনিবার সকাল সাড়ে আটটার দিকে বাড়ির পাশের পুকুরের পানিতে আবু বাক্কারের লাশ ভাসতে দেখা যায়। পরে পুকুর থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়।
আবু বাক্কারের ভাই রইস উদ্দিন প্রথম আলোকে বলেন, তাঁর ভাই বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী ও মৃগী রোগী ছিলেন। মাঝেমধ্যে অস্বাভাবিক আচরণ করতেন। রাতে পুকুরে কোনো কাজে গিয়ে পানিতে ডুবে মারা যেতে পারেন। তবে তাঁর ভাইকে কেউ মেরে ফেলেননি। কারণ, মেরে ফেলার কোনো আলামত নেই। কারও প্রতি কোনো সন্দেহ বা অভিযোগও নেই।
বাগমারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিনুল ইসলাম বলেন, আবু বাক্কার মৃগী রোগী ছিলেন। মানসিকভাবে সুস্থও ছিলেন না। এ ঘটনায় পরিবারের পক্ষ থেকে কোনো অভিযোগ নেই।