ঢাকা ০১:৪৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞপ্তি ::
আমাদের নিউজপোর্টালে আপনাকে স্বাগতম... সারাদেশে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে...

ছিনতাইকারীকে গ্রেপ্তার বোনের ছেলেকে না ছাড়ায় থানা চত্বরেই নারীর আত্মহত্যার চেষ্টা

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০১:০৭:২৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ২০১ বার পড়া হয়েছে

চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ থানা চত্বরের আমগাছে গলায় ওড়না পেচিয়ে এক নারী আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন। একটি ছিনতাই মামলায় গ্রেপ্তার বোনের ছেলেকে ছাড়াতে সুপারিশ করেও ব্যর্থ হয়ে হতাশায় ওই নারী আত্মহত্যার চেষ্টা করে। পরে থানায় আসা সেবাগ্রহীতা, স্থানীয় জনতা ও পুলিশ সদস্যদের সহযোগিতায় তাকে গাছ থেকে নামানো হয়। এসময় গাছ থেকে নামাতে গিয়ে ধস্তাধস্তি করার সময় আঘাত পেলে তাকে চিকিৎসার জন্য শিবগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

চিকিৎসা দেয়ার পর থানা চত্বরে আত্মহত্যার চেষ্টা করায় তার বিরুদ্ধে মামলা করে আদালতে সোপর্দ করে শিবগঞ্জ থানা পুলিশ। এ ঘটনায় আদালত তাকে কারাগারে প্রেরণ করে। পরে জামিন পায় আত্মহত্যার চেষ্টাকারী নারী শিবগঞ্জ উপজেলার দৌলতপুর গ্রামের আব্দুল মজিদের মেয়ে শিউলী খাতুন।

থানা পুলিশ, অন্যান্য সেবাগ্রহীতা, প্রতক্ষ্যদর্শী ও স্থানীয় বাসিন্দা সূত্রে জানা যায়, গত বুধবার (১৩ সেপ্টেম্বর) সকাল ১০টার দিকে শিবগঞ্জ বাজারে দুর্লভপুর ইউনিয়নের পনেররশিয়া গ্রামের মরফুল ইসলামের একটি মোটরসাইকেল নিয়ে তার ছেলে সাজিদ মাহমুদ যাওয়ার পথে তার গতিরোধ করে থানায় আত্মহত্যার চেষ্টাকারী শিউলী খাতুনের বোনের ছেলে ও মনাকষা বিশ্বনাথপুরের তোজাম্মেল হকের ছেলে ইমন। এসময় সাজিদ মাহমুদকে মারধর করে তার মোটরসাইকেল ছিনিয়ে নেয় ইমন। পরে সাজিদ চিৎকার করলে স্থানীয় জনতা তাকে আটক করে পুলিশকে খবর দেয়।

পরে পুলিশ ছিনতাইকারী ইমনকে গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে যায়। এ ঘটনায় গ্রেপ্তার ইমনকে আসামী করে থানায় মামলা দায়ের করেন সাজিদের বাবা মরফুল ইসলাম। এদিন দুপুরে গ্রেপ্তার ইমনের খালা শিউলী খাতুন ও তার নানী সালেহা বেগমসহ তার পরিবারের কয়েকজন সদস্য থানায় তাকে দেখতে আসে। পরে তারা তাকে ছেড়ে দেয়ার অনুরোধ করে পুলিশকে। পুলিশ ছিনতাই মামলা আসামীকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে আইনগসঙ্গতভাবে ছেড়ে দেয়ার অস্বীকৃতি জানালে নানারকম আপত্তিকর ও পুলিশকে নানারকম গালিগালাজ করে শিউলী খাতুন।

প্রত্যক্ষদর্শী মো. আওয়াল জানান, থানা থেকে বের হয়েই শিউলী খাতুন থানা চত্বরে থাকা আমগাছে উঠে পড়ে। এসময় নিজের ওড়না গলায় দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে ওই নারী। পরে থানায় থাকা লোকজন ও পুলিশ তাকে গাছ থেকে নামানোর চেষ্টা করে। জোর করেই তাকে অনেক চেষ্টার পর গাছ থেকে নামানো হয়। গাছ থেকে নামাতে গিয়ে ধস্তাধস্তি হলে শরীরে আঘাত পায় শিউলী খাতুন। পরে পুলিশ সদস্যরা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করে।

তিনি আরও জানান, এরআগে একটি কাজে আমি ওসির রুমে থাকাকালীন সময়ে সেখানে আসেন শিউলী ও তার পরিবারের সদস্যরা। এসময় ছিনতাই মামলার গ্রেপ্তারকৃত আসামী ইমনকে ছেড়ে দেয়ার দাবি করেন তারা। স্বাভাবিকভাবেই ওসি তাতে অস্বীকৃতি জানালে ওসির রুমেই চিৎকার চেঁচামেচি ও গালিগালাজ শুরু করে তারা।

ছিনতাই মামলার বাদি মরফুল ইসলাম বলেন, আমার কিশোর ছেলের কাছে জোরপূর্বক মোটরসাইকেল ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে। এসময় সেখানে থাকা লোকজন তাকে আটক করে পুলিশকে জানায়। পরে ইমনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করি। ছিনতাইকারী ইমনকে ছাড়িয়ে নিতে শিউলী খাতুন আত্মহত্যার নাটক করে। আমি আমার ছেলের উপর নির্যাতন ও ছিনতাই চেষ্টার উপযুক্ত বিচার চাই।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে একাধিক পুলিশ সদস্য জানান, থানা চত্বরে আত্মহত্যা চেষ্টা করতে গাছে উঠলে আমরা আতঙ্কিত হয়ে যায়। পুলিশকে ব্ল্যাকমেইল করতেই সে এমন কাজ করেছে। পরে উপস্থিত জনতা ও পুলিশ সদস্যরা মিলে তাকে গাছ থেকে নামায়। এসময় পুলিশ সদস্যদেরকে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ ও কিল-ঘুষি-লাথি দেয় শিউলী খাতুন।

শিবগঞ্জ থানার ওসি চৌধুরী জোবায়ের আহমেদ বলেন, গ্রেপ্তারকৃত আসামীকে দেখতে এসে থানায় হট্টগোল করে ওই নারী। এছাড়াও পুলিশকে গালিগালাজ করে ও অশ্লীল ভাষায় কথা বলে। এমনকি থানা চত্বরে আত্মহত্যা করার চেষ্টা করে। এসময় উপস্থিত জনতা ও পুলিশ সদস্যরা তাকে উদ্ধার করতে গিয়ে ধস্তাধস্তি হয়। এসময় শরীরে আঘাত পেলে পুলিশ সদস্যরা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে চিকিৎসা করায়।

ওসি আরও বলেন, থানা চত্বরের একটি আমগাছে আত্মহত্যার চেষ্টা করায় তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। সেই মামলায় তাকে আদালতে সোপর্দ করা হয়। থানায় এমন পরিস্থিতি মোকাবেলা করতে ও তাকে আত্মহত্যা থেকে বাঁচাতে পুলিশ ও উপস্থিত জনতা সহযোগিতা করেছে।

#

আব্দুল ওয়াহাব

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি

২৩/০৯/২৩

০১৭২৪৮৪১২৫০

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

ছিনতাইকারীকে গ্রেপ্তার বোনের ছেলেকে না ছাড়ায় থানা চত্বরেই নারীর আত্মহত্যার চেষ্টা

আপডেট সময় : ০১:০৭:২৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২৩

চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ থানা চত্বরের আমগাছে গলায় ওড়না পেচিয়ে এক নারী আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন। একটি ছিনতাই মামলায় গ্রেপ্তার বোনের ছেলেকে ছাড়াতে সুপারিশ করেও ব্যর্থ হয়ে হতাশায় ওই নারী আত্মহত্যার চেষ্টা করে। পরে থানায় আসা সেবাগ্রহীতা, স্থানীয় জনতা ও পুলিশ সদস্যদের সহযোগিতায় তাকে গাছ থেকে নামানো হয়। এসময় গাছ থেকে নামাতে গিয়ে ধস্তাধস্তি করার সময় আঘাত পেলে তাকে চিকিৎসার জন্য শিবগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

চিকিৎসা দেয়ার পর থানা চত্বরে আত্মহত্যার চেষ্টা করায় তার বিরুদ্ধে মামলা করে আদালতে সোপর্দ করে শিবগঞ্জ থানা পুলিশ। এ ঘটনায় আদালত তাকে কারাগারে প্রেরণ করে। পরে জামিন পায় আত্মহত্যার চেষ্টাকারী নারী শিবগঞ্জ উপজেলার দৌলতপুর গ্রামের আব্দুল মজিদের মেয়ে শিউলী খাতুন।

থানা পুলিশ, অন্যান্য সেবাগ্রহীতা, প্রতক্ষ্যদর্শী ও স্থানীয় বাসিন্দা সূত্রে জানা যায়, গত বুধবার (১৩ সেপ্টেম্বর) সকাল ১০টার দিকে শিবগঞ্জ বাজারে দুর্লভপুর ইউনিয়নের পনেররশিয়া গ্রামের মরফুল ইসলামের একটি মোটরসাইকেল নিয়ে তার ছেলে সাজিদ মাহমুদ যাওয়ার পথে তার গতিরোধ করে থানায় আত্মহত্যার চেষ্টাকারী শিউলী খাতুনের বোনের ছেলে ও মনাকষা বিশ্বনাথপুরের তোজাম্মেল হকের ছেলে ইমন। এসময় সাজিদ মাহমুদকে মারধর করে তার মোটরসাইকেল ছিনিয়ে নেয় ইমন। পরে সাজিদ চিৎকার করলে স্থানীয় জনতা তাকে আটক করে পুলিশকে খবর দেয়।

পরে পুলিশ ছিনতাইকারী ইমনকে গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে যায়। এ ঘটনায় গ্রেপ্তার ইমনকে আসামী করে থানায় মামলা দায়ের করেন সাজিদের বাবা মরফুল ইসলাম। এদিন দুপুরে গ্রেপ্তার ইমনের খালা শিউলী খাতুন ও তার নানী সালেহা বেগমসহ তার পরিবারের কয়েকজন সদস্য থানায় তাকে দেখতে আসে। পরে তারা তাকে ছেড়ে দেয়ার অনুরোধ করে পুলিশকে। পুলিশ ছিনতাই মামলা আসামীকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে আইনগসঙ্গতভাবে ছেড়ে দেয়ার অস্বীকৃতি জানালে নানারকম আপত্তিকর ও পুলিশকে নানারকম গালিগালাজ করে শিউলী খাতুন।

প্রত্যক্ষদর্শী মো. আওয়াল জানান, থানা থেকে বের হয়েই শিউলী খাতুন থানা চত্বরে থাকা আমগাছে উঠে পড়ে। এসময় নিজের ওড়না গলায় দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে ওই নারী। পরে থানায় থাকা লোকজন ও পুলিশ তাকে গাছ থেকে নামানোর চেষ্টা করে। জোর করেই তাকে অনেক চেষ্টার পর গাছ থেকে নামানো হয়। গাছ থেকে নামাতে গিয়ে ধস্তাধস্তি হলে শরীরে আঘাত পায় শিউলী খাতুন। পরে পুলিশ সদস্যরা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করে।

তিনি আরও জানান, এরআগে একটি কাজে আমি ওসির রুমে থাকাকালীন সময়ে সেখানে আসেন শিউলী ও তার পরিবারের সদস্যরা। এসময় ছিনতাই মামলার গ্রেপ্তারকৃত আসামী ইমনকে ছেড়ে দেয়ার দাবি করেন তারা। স্বাভাবিকভাবেই ওসি তাতে অস্বীকৃতি জানালে ওসির রুমেই চিৎকার চেঁচামেচি ও গালিগালাজ শুরু করে তারা।

ছিনতাই মামলার বাদি মরফুল ইসলাম বলেন, আমার কিশোর ছেলের কাছে জোরপূর্বক মোটরসাইকেল ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে। এসময় সেখানে থাকা লোকজন তাকে আটক করে পুলিশকে জানায়। পরে ইমনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করি। ছিনতাইকারী ইমনকে ছাড়িয়ে নিতে শিউলী খাতুন আত্মহত্যার নাটক করে। আমি আমার ছেলের উপর নির্যাতন ও ছিনতাই চেষ্টার উপযুক্ত বিচার চাই।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে একাধিক পুলিশ সদস্য জানান, থানা চত্বরে আত্মহত্যা চেষ্টা করতে গাছে উঠলে আমরা আতঙ্কিত হয়ে যায়। পুলিশকে ব্ল্যাকমেইল করতেই সে এমন কাজ করেছে। পরে উপস্থিত জনতা ও পুলিশ সদস্যরা মিলে তাকে গাছ থেকে নামায়। এসময় পুলিশ সদস্যদেরকে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ ও কিল-ঘুষি-লাথি দেয় শিউলী খাতুন।

শিবগঞ্জ থানার ওসি চৌধুরী জোবায়ের আহমেদ বলেন, গ্রেপ্তারকৃত আসামীকে দেখতে এসে থানায় হট্টগোল করে ওই নারী। এছাড়াও পুলিশকে গালিগালাজ করে ও অশ্লীল ভাষায় কথা বলে। এমনকি থানা চত্বরে আত্মহত্যা করার চেষ্টা করে। এসময় উপস্থিত জনতা ও পুলিশ সদস্যরা তাকে উদ্ধার করতে গিয়ে ধস্তাধস্তি হয়। এসময় শরীরে আঘাত পেলে পুলিশ সদস্যরা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে চিকিৎসা করায়।

ওসি আরও বলেন, থানা চত্বরের একটি আমগাছে আত্মহত্যার চেষ্টা করায় তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। সেই মামলায় তাকে আদালতে সোপর্দ করা হয়। থানায় এমন পরিস্থিতি মোকাবেলা করতে ও তাকে আত্মহত্যা থেকে বাঁচাতে পুলিশ ও উপস্থিত জনতা সহযোগিতা করেছে।

#

আব্দুল ওয়াহাব

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি

২৩/০৯/২৩

০১৭২৪৮৪১২৫০