ঢাকা ০১:১৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞপ্তি ::
আমাদের নিউজপোর্টালে আপনাকে স্বাগতম... সারাদেশে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে...

গাজায় জরুরি ওষুধ পাঠানোর অনুরোধ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০২:৩৮:৩১ অপরাহ্ন, বুধবার, ১১ অক্টোবর ২০২৩ ৬৬ বার পড়া হয়েছে

ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকাকে কার্যত অবরুদ্ধ করে রেখেছে ইসরায়েল। সেখানে কিছু ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না। বের হতেও পারছে না কিছু। এর মধ্যেই চলছে একের পর এক হামলা। ফলে চরম মানবিক সংকটে পড়েছে গাজাবাসী।

এ পরিস্থিতিতে গাজায় জরুরি ওষুধ সরবরাহের সুযোগ দেওয়ার অনুরোধ জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। এ ছাড়া একাধিক মানবাধিকার সংগঠনের আবেদন, অবরুদ্ধ গাজায় খাবার ও ওষুধ পাঠানোর অনুমতি দেওয়া হোক।

তবে ইসরায়েল এসব আবেদন আমলে নিতে রাজি নয়। দেশটির দাবি, হামাসের হাতে আটক হওয়া ব্যক্তিদের আগে মুক্তি দিতে হবে।
ইসরায়েলে হামলার দিন গত শনিবার বহু ফিলিস্তিনি সমুদ্রপথে, দক্ষিণ অংশের বেড়া টপকে এবং কাঁটাতার কেটে ইসরায়েলে ঢুকেছিল। গতকাল মঙ্গলবার ইসরায়েল জানিয়েছে, দক্ষিণের অংশ এখন নিরাপদ। যাঁরা ঢুকেছিলেন, তাঁদের কেউ সমুদ্রপথে, কেউবা স্থলপথে পালিয়ে গেছেন।
ফিলিস্তিনের প্রতিরোধ সংগঠন হামাস গত শনিবার ইসরায়েলের ভূখণ্ডে মাত্র ২০ মিনিটে হাজার পাঁচেক রকেট ছুড়ে নিজেদের শক্তির জানান দেয়। ভেদ করে ইসরায়েলের নিশ্ছিদ্র সুরক্ষাবলয়কে।

শুধু তা-ই নয়, সীমান্ত পেরিয়ে ইসরায়েলে ঢুকে পড়ে হামাসের যোদ্ধারা। শুরুতে হতবাক হলেও দ্রুত পাল্টা জবাব দেয় ইসরায়েল। পাল্টা আক্রমণ করে গাজা উপত্যকায়। এর পর থেকে ফিলিস্তিনে মুহুর্মুহু বোমা পড়ছে।
হামাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছে ইসরায়েল। দেশটির কট্টর ডানপন্থী প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু বলেন, ‘এটা দীর্ঘ ও জটিল একটি যুদ্ধ।’

যুদ্ধ শুরুর পরপরই গাজা অবরুদ্ধ করে ইসরায়েল। দেশটির প্রতিরক্ষামন্ত্রী ইওয়ভ গ্যালান্ট বলেন, ‘আমরা বর্বরদের সঙ্গে যুদ্ধ করছি। সেই অনুযায়ী জবাব দেওয়া হবে।’
পাঁচ দিন ধরে ইসরায়েলি বিমান হামলায় গাজায় অসংখ্য ভবন ধসে পড়েছে। দেখা দিয়েছে খাবারের চরম সংকট। অনেক জায়গায় নেই বিদ্যুৎ। সুপেয় পানির সংকটে ভুগছেন গাজাবাসী। অনেকে জীবন বাঁচাতে পরিবার নিয়ে নিরাপদ জায়গায় পালিয়েছেন। অনেকে আশ্রয়শিবিরে উঠেছেন। সেখানেও হামলা হচ্ছে।

ইসরায়েলের প্রতিরক্ষা বাহিনীর পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, গাজায় দুই শতাধিক জায়গায় বিমান হামলা চালানো হয়েছে। গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্য, ইসরায়েলি হামলায় মৃত মানুষের সংখ্যা ৯০০ ছাড়িয়েছে। অন্যদিকে হামাসের হামলায় ইসরায়েলের মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১ হাজার ২০০ হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

গাজায় জরুরি ওষুধ পাঠানোর অনুরোধ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার

আপডেট সময় : ০২:৩৮:৩১ অপরাহ্ন, বুধবার, ১১ অক্টোবর ২০২৩

ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকাকে কার্যত অবরুদ্ধ করে রেখেছে ইসরায়েল। সেখানে কিছু ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না। বের হতেও পারছে না কিছু। এর মধ্যেই চলছে একের পর এক হামলা। ফলে চরম মানবিক সংকটে পড়েছে গাজাবাসী।

এ পরিস্থিতিতে গাজায় জরুরি ওষুধ সরবরাহের সুযোগ দেওয়ার অনুরোধ জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। এ ছাড়া একাধিক মানবাধিকার সংগঠনের আবেদন, অবরুদ্ধ গাজায় খাবার ও ওষুধ পাঠানোর অনুমতি দেওয়া হোক।

তবে ইসরায়েল এসব আবেদন আমলে নিতে রাজি নয়। দেশটির দাবি, হামাসের হাতে আটক হওয়া ব্যক্তিদের আগে মুক্তি দিতে হবে।
ইসরায়েলে হামলার দিন গত শনিবার বহু ফিলিস্তিনি সমুদ্রপথে, দক্ষিণ অংশের বেড়া টপকে এবং কাঁটাতার কেটে ইসরায়েলে ঢুকেছিল। গতকাল মঙ্গলবার ইসরায়েল জানিয়েছে, দক্ষিণের অংশ এখন নিরাপদ। যাঁরা ঢুকেছিলেন, তাঁদের কেউ সমুদ্রপথে, কেউবা স্থলপথে পালিয়ে গেছেন।
ফিলিস্তিনের প্রতিরোধ সংগঠন হামাস গত শনিবার ইসরায়েলের ভূখণ্ডে মাত্র ২০ মিনিটে হাজার পাঁচেক রকেট ছুড়ে নিজেদের শক্তির জানান দেয়। ভেদ করে ইসরায়েলের নিশ্ছিদ্র সুরক্ষাবলয়কে।

শুধু তা-ই নয়, সীমান্ত পেরিয়ে ইসরায়েলে ঢুকে পড়ে হামাসের যোদ্ধারা। শুরুতে হতবাক হলেও দ্রুত পাল্টা জবাব দেয় ইসরায়েল। পাল্টা আক্রমণ করে গাজা উপত্যকায়। এর পর থেকে ফিলিস্তিনে মুহুর্মুহু বোমা পড়ছে।
হামাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছে ইসরায়েল। দেশটির কট্টর ডানপন্থী প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু বলেন, ‘এটা দীর্ঘ ও জটিল একটি যুদ্ধ।’

যুদ্ধ শুরুর পরপরই গাজা অবরুদ্ধ করে ইসরায়েল। দেশটির প্রতিরক্ষামন্ত্রী ইওয়ভ গ্যালান্ট বলেন, ‘আমরা বর্বরদের সঙ্গে যুদ্ধ করছি। সেই অনুযায়ী জবাব দেওয়া হবে।’
পাঁচ দিন ধরে ইসরায়েলি বিমান হামলায় গাজায় অসংখ্য ভবন ধসে পড়েছে। দেখা দিয়েছে খাবারের চরম সংকট। অনেক জায়গায় নেই বিদ্যুৎ। সুপেয় পানির সংকটে ভুগছেন গাজাবাসী। অনেকে জীবন বাঁচাতে পরিবার নিয়ে নিরাপদ জায়গায় পালিয়েছেন। অনেকে আশ্রয়শিবিরে উঠেছেন। সেখানেও হামলা হচ্ছে।

ইসরায়েলের প্রতিরক্ষা বাহিনীর পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, গাজায় দুই শতাধিক জায়গায় বিমান হামলা চালানো হয়েছে। গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্য, ইসরায়েলি হামলায় মৃত মানুষের সংখ্যা ৯০০ ছাড়িয়েছে। অন্যদিকে হামাসের হামলায় ইসরায়েলের মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১ হাজার ২০০ হয়েছে।