ঢাকা ১২:৫৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞপ্তি ::
আমাদের নিউজপোর্টালে আপনাকে স্বাগতম... সারাদেশে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে...

কক্সবাজারে আকিজ পাহাড় এলাকায় দশ কোটি টাকা মূল্যের ০২ কেজি ক্রিস্টালমেথ বা আইস উদ্ধারসহ রোহিঙ্গা মাদক কারবারী র‌্যাব-১৫ কর্তৃক গ্রেফতার

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৯:০০:৪৯ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪ ২৫ বার পড়া হয়েছে

কক্সবাজারের উখিয়া থানাধীন রাজাপালং ইউনিয়নস্থ আকিজ পাহাড় এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে দশ কোটি টাকা মূল্যের ০২ কেজি ক্রিস্টালমেথ বা আইস উদ্ধারসহ একজন রোহিঙ্গা মাদক কারবারী র‌্যাব-১৫ কর্তৃক গ্রেফতার

১। র‌্যাব-১৫, কক্সবাজার দায়িত্বপূর্ণ এলাকায় মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি বাস্তবায়নে বদ্ধ পরিকর। দেশব্যাপী মাদকের বিস্তাররোধসহ সমাজে বিরাজমান নানাবিধ অপরাধ দমন ও অপরাধের সাথে জড়িত অপরাধীদের গ্রেফতারের লক্ষ্যে র‌্যাব-১৫ নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

২। বর্তমান সময়ে সর্বনাশা মাদকের মধ্যে সবচেয়ে আলোচিত হলো ক্রিস্টাল মেথ বা আইস। ক্রিস্টালমেথ বা আইস নামক এই মাদকের নেশার প্রচলন বৃদ্ধি পাওয়ায় মাদক কারবারীরা পার্শ্ববর্তী দেশ হতে বিভিন্ন কৌশলে আইসের চালান নিয়ে আসছে। এছাড়া আসন্ন ঈদুল আযহা’কে কেন্দ্র করে কক্সবাজার জেলার মাদক ব্যবসায়ীরা তরুন প্রজন্মকে টার্গেট করতঃ ভয়ংকর মাদকদ্রব্য আইস বিভিন্ন এলাকায় ছড়িয়ে দিচ্ছে বলে র‌্যাবের আভিযানিক দল বিভিন্ন সূত্র জানতে পারে। এ প্রেক্ষিতে র‌্যাব-১৫ দায়িত্বপূর্ণ এলাকায় গোয়েন্দা তৎপরতা ও নজরদারী বৃদ্ধি করে।

৩। এরই ধারাবাহিকতায় গোপন সূত্রে র‌্যাব-১৫ এর আভিযানিক দল জানতে পারে, কক্সবাজার জেলার উখিয়া থানাধীন রাজাপালং ইউনিয়নের ০৯নং ওয়ার্ডের আকিজ পাহাড় এলাকায় একজন মাদক ব্যবসায়ী মাদকদ্রব্য বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে অবস্থান করছে। উক্ত তথ্যের ভিত্তিতে গত ২৪ মে ২০২৪ তারিখ অনুমান ০৮.২৫ ঘটিকার সময় র‌্যাব-১৫, সিপিসি-২ হোয়াইক্যং ক্যাম্পের আভিযানিক দল বর্ণিত এলাকায় একটি মাদক বিরোধী বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে। এ সময় আভিযানিক দলের উপস্থিতি বুঝতে পেরে একটি শপিং ব্যাগসহ পালানোর চেষ্টাকালে মাদক কারবারী মোহাম্মদ রফিক (৩৮) (রোহিঙ্গা), পিতা-মৃত ইব্রাহিম, মাতা-মৃত মাহামুদা খাতুন, এফসিএন নং-২৮০১৮২, সাং-কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্প নং-৭, ব্লক-বি/২, থানা-উখিয়া, জেলা-কক্সবাজার’কে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়। পরবর্তীতে উপস্থিত সাক্ষীদের সম্মুখে আটককৃত ব্যক্তির দেহ ও তার হেফাজতে থাকা শপিং ব্যাগ তল্লাশী করে দশ কোটি টাকা মূল্যের ০২ কেজি ক্রিস্টালমেথ (আইস) উদ্ধারসহ ০১টি বাটন ও ০১টি এন্ড্রয়েট মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়।

৪। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃত মাদক কারবারী একজন জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত পার্শ্ববর্তী দেশের নাগরিক বলে জানায়। জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, আসন্ন ঈদুল আযহা’কে কেন্দ্র করে মাদকের চাহিদা থাকায় ভয়ংকর এই মাদকদ্রব্য আইস তরুণ প্রজন্ম ও মাদক সেবনকারীদের মাঝে বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে পার্শ্ববর্তী দেশ থেকে সংগ্রহ এবং নিজ হেফাজতে রেখে উক্ত স্থানে বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে অবস্থান করছিল মর্মে স্বীকার করে। এছাড়াও গ্রেফতারকৃত মাদক কারবারী বেশকিছু দিন ধরে অত্যন্ত চতুরতার সাথে সময় ও সুযোগ বুঝে চড়া মূল্যে এসব মাদক বিক্রয় করে আসছে বলেও জানা যায়।

৫। উদ্ধারকৃত আলামতসহ গ্রেফতারকৃত মাদক কারবারীর বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণার্থে কক্সবাজার জেলার উখিয়া থানায় লিখিত এজাহার দাখিল করা হয়েছে।

—–স্বাক্ষরিত—–
মোঃ আবু সালাম চৌধুরী
অতিরিক্ত পুলিশ সুপার
সিনিয়র সহকারী পরিচালক (ল’ এন্ড মিডিয়া)
পক্ষে অধিনায়ক

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

কক্সবাজারে আকিজ পাহাড় এলাকায় দশ কোটি টাকা মূল্যের ০২ কেজি ক্রিস্টালমেথ বা আইস উদ্ধারসহ রোহিঙ্গা মাদক কারবারী র‌্যাব-১৫ কর্তৃক গ্রেফতার

আপডেট সময় : ০৯:০০:৪৯ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪

কক্সবাজারের উখিয়া থানাধীন রাজাপালং ইউনিয়নস্থ আকিজ পাহাড় এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে দশ কোটি টাকা মূল্যের ০২ কেজি ক্রিস্টালমেথ বা আইস উদ্ধারসহ একজন রোহিঙ্গা মাদক কারবারী র‌্যাব-১৫ কর্তৃক গ্রেফতার

১। র‌্যাব-১৫, কক্সবাজার দায়িত্বপূর্ণ এলাকায় মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি বাস্তবায়নে বদ্ধ পরিকর। দেশব্যাপী মাদকের বিস্তাররোধসহ সমাজে বিরাজমান নানাবিধ অপরাধ দমন ও অপরাধের সাথে জড়িত অপরাধীদের গ্রেফতারের লক্ষ্যে র‌্যাব-১৫ নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

২। বর্তমান সময়ে সর্বনাশা মাদকের মধ্যে সবচেয়ে আলোচিত হলো ক্রিস্টাল মেথ বা আইস। ক্রিস্টালমেথ বা আইস নামক এই মাদকের নেশার প্রচলন বৃদ্ধি পাওয়ায় মাদক কারবারীরা পার্শ্ববর্তী দেশ হতে বিভিন্ন কৌশলে আইসের চালান নিয়ে আসছে। এছাড়া আসন্ন ঈদুল আযহা’কে কেন্দ্র করে কক্সবাজার জেলার মাদক ব্যবসায়ীরা তরুন প্রজন্মকে টার্গেট করতঃ ভয়ংকর মাদকদ্রব্য আইস বিভিন্ন এলাকায় ছড়িয়ে দিচ্ছে বলে র‌্যাবের আভিযানিক দল বিভিন্ন সূত্র জানতে পারে। এ প্রেক্ষিতে র‌্যাব-১৫ দায়িত্বপূর্ণ এলাকায় গোয়েন্দা তৎপরতা ও নজরদারী বৃদ্ধি করে।

৩। এরই ধারাবাহিকতায় গোপন সূত্রে র‌্যাব-১৫ এর আভিযানিক দল জানতে পারে, কক্সবাজার জেলার উখিয়া থানাধীন রাজাপালং ইউনিয়নের ০৯নং ওয়ার্ডের আকিজ পাহাড় এলাকায় একজন মাদক ব্যবসায়ী মাদকদ্রব্য বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে অবস্থান করছে। উক্ত তথ্যের ভিত্তিতে গত ২৪ মে ২০২৪ তারিখ অনুমান ০৮.২৫ ঘটিকার সময় র‌্যাব-১৫, সিপিসি-২ হোয়াইক্যং ক্যাম্পের আভিযানিক দল বর্ণিত এলাকায় একটি মাদক বিরোধী বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে। এ সময় আভিযানিক দলের উপস্থিতি বুঝতে পেরে একটি শপিং ব্যাগসহ পালানোর চেষ্টাকালে মাদক কারবারী মোহাম্মদ রফিক (৩৮) (রোহিঙ্গা), পিতা-মৃত ইব্রাহিম, মাতা-মৃত মাহামুদা খাতুন, এফসিএন নং-২৮০১৮২, সাং-কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্প নং-৭, ব্লক-বি/২, থানা-উখিয়া, জেলা-কক্সবাজার’কে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়। পরবর্তীতে উপস্থিত সাক্ষীদের সম্মুখে আটককৃত ব্যক্তির দেহ ও তার হেফাজতে থাকা শপিং ব্যাগ তল্লাশী করে দশ কোটি টাকা মূল্যের ০২ কেজি ক্রিস্টালমেথ (আইস) উদ্ধারসহ ০১টি বাটন ও ০১টি এন্ড্রয়েট মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়।

৪। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃত মাদক কারবারী একজন জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত পার্শ্ববর্তী দেশের নাগরিক বলে জানায়। জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, আসন্ন ঈদুল আযহা’কে কেন্দ্র করে মাদকের চাহিদা থাকায় ভয়ংকর এই মাদকদ্রব্য আইস তরুণ প্রজন্ম ও মাদক সেবনকারীদের মাঝে বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে পার্শ্ববর্তী দেশ থেকে সংগ্রহ এবং নিজ হেফাজতে রেখে উক্ত স্থানে বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে অবস্থান করছিল মর্মে স্বীকার করে। এছাড়াও গ্রেফতারকৃত মাদক কারবারী বেশকিছু দিন ধরে অত্যন্ত চতুরতার সাথে সময় ও সুযোগ বুঝে চড়া মূল্যে এসব মাদক বিক্রয় করে আসছে বলেও জানা যায়।

৫। উদ্ধারকৃত আলামতসহ গ্রেফতারকৃত মাদক কারবারীর বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণার্থে কক্সবাজার জেলার উখিয়া থানায় লিখিত এজাহার দাখিল করা হয়েছে।

—–স্বাক্ষরিত—–
মোঃ আবু সালাম চৌধুরী
অতিরিক্ত পুলিশ সুপার
সিনিয়র সহকারী পরিচালক (ল’ এন্ড মিডিয়া)
পক্ষে অধিনায়ক