আম্ফানের রাতেই জন্ম নিল আরেক ‘আম্ফান’

বুধবার সন্ধ্যা থেকেই আম্ফানের প্রভাবে চারদিকে দমকা হাওয়ার সঙ্গে শুরু হয়ঝড়-বৃষ্টি। আর এ রাতেই ভোলার মনপুরায় প্রসব বেদনা নিয়ে কাতরাচ্ছিলেন প্রসূতি। কোনো উপায় না পেয়ে স্বজনরা তাকে নিয়ে যান উপজে'লা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে। সেখানেই বৃহস্পতিবার ভোরে চিকিৎসক ও নার্সদের প্রচেষ্টায় ফুটফুটে একটি ছে'লে জন্ম দেন ওই মা। পরে চিকিৎসক-নার্সরা খুশিতে এ সন্তানের নাম দেন ‘আম্ফান’।
ওই প্রসূতির নাম সামিয়া। তিনি উপজে'লার হাজিরহাট ইউপির চরযতিন গ্রামের বাসিন্দা ছালাউদ্দিনের স্ত্রী'।

উপজে'লা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য কর্মক'র্তা ডা. মাহমুদুর রশীদ বলেন, আম্ফানের রাতে আশ'ঙ্কাজনক অবস্থায় প্রসূতি সামিয়াকে উপজে'লা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনেন স্বজনরা। অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে সদর হাসপাতা'লে পাঠানোর প্রয়োজন হয়েছিল। কিন্তু ঘূর্ণিঝড়ের কারণে তাকে সেখানে পাঠানো যায়নি। তাই রাতভর চিকিৎসক ও নার্সদের চেষ্টায় সুস্থ অবস্থায় প্রথম ছে'লে সন্তান পৃথিবীর আলো দেখে। যার নাম দেয়া হয় আম্ফান। বর্তমানে মা ও সন্তান সুস্থ রয়েছেন।

Back to top button