নামাজিদের ফ্রিতে চা পান করান এ বৃদ্ধ

ইস'লাম ধ'র্মকে পূর্ণা’ঙ্গ জীবন ব্যবস্থা বলা হয়। আর এ ধ'র্মে সেবা একটি গুরুত্বপূরণ বিষয়। আল্লাহর হক ও বান্দার হক পালন বা সেবা করা ইস'লামে বেশ প্রাধান্য দেয়া হয়েছে। ধ'র্মটি মানবজাতিকে দয়ালু ও উদার হতে শিক্ষা দেয়। এছাড়া মহান আল্লাহতায়ালা উদার ব্যক্তিদের বেশি পছন্দ করেন। পবিত্র কুরআনের সূরা বাকারা’র ২৬২ আয়াতে আল্লাহপাক বলেন, যারা আল্লাহর পথে নিজের ধন-সম্পদ ব্যয় করে এবং নিজেদের অনুগ্রহের কথা প্রকাশ করে না, আর কাউকে ক’ষ্ট দেয় না, তাদের জন্য প্রতিপালকের কাছে প্রতিদান রয়েছে এবং তাদের ভয় নেই।

মহান আল্লাহতালার প্রেরিত রাসূল ও ইস'লামের শেষ এবং সর্বশ্রেষ্ঠ নবী হযরত মুহাম্ম'দ (সা.) মানবজাতির মধ্যে সবচেয়ে বড় উদার ব্যক্তি ছিলেন। শ’ত্রুরাও তার কাছ থেকে উদারতা ছাড়া আর কিছু আশা করতো না। কারণ তাদের প্রতিও তিনি দয়াবান ছিলেন। আর মহানবীর অনুসারীরা সব সময় উদারতার পরিচয় দেন। এরইমধ্যে রাসূলে পাক (সা:) এর স্মৃ’তিবিজ'ড়িত শহর ম'দিনাতে এক অন্যরকম উদার ব্যক্তির সন্ধান পাওয়া গেছে।

তিনি ঐতিহাসিক কুবা ম'সজিদের সামনের সড়কে বসে ফ্রিতে মু'সল্লিদের চা ও মিষ্টান্ন পরিবেশন করেন। এ সময় তার আশেপাশে কে বা কারা রয়েছেন, তা লক্ষ্য রাখেন না। বৃদ্ধ প্রতিদিন বেশ কয়েকটি ফ্লা’ক্সে চা ও প্রচুর কাপ নিয়ে বসেন। নামাজ পড়তে আসা মু'সল্লি বা দর্শনার্থীদের চা পরিবেশন করেন তিনি। লোকটি বিনিময়ে কোনো কোনো অর্থ নেন না। তার অসাধারণ কাজে প্রত্যেক মানুষ মুগ্ধ হন।

মহানবী রাসূলের (সা:) অনুসারী হিসেবে সবার সঙ্গে সদাচরণ করা, সহায়তা করা উচিত। সবার উচিত, যেকোনো সমস্যায় সবার পাশে দাঁড়ানো।-ডেইলি বাংলাদেশ